এইচএসসি পাস করেই এমবিবিএস ডাক্তার!

|

বেশ কিছুদিন ধরেই নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে বিভিন্ন হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও চিকিৎসা কেন্দ্রে অভিযান পরিচালনা করছে র‍্যাব-১১। একাধিক ভুয়া ডাক্তারকেও গ্রেফতার করেছে তারা। এর ধারাবাহিকতায় আজ মঙ্গলবার বিকালে চিটাগাংরোডস্থ চাঁন সুপার মার্কেটের তৃতীয় তলায় সি.ডি (কুমিল্লা ডায়াগনস্টিক) কমপ্লেক্স সেন্টার থেকে জহিরুল ইসলাম (৪৫) নামে আরো এক ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তারকে আটক করেছে র‌্যাব-১১। এ নিয়ে গত ৫ মাসে ৮জন ভুয়া ডাক্তারকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

শুধুমাত্র এইচএসসি পাশ করা এই ভুয়া ডাক্তার এক বছর যাবত ওই প্রতিষ্ঠানে সনোলজিস্ট হিসেবে আল্ট্রাসনোগ্রাম করে আসছিলেন। র‌্যাবের অভিযানে তিনি এমবিবিএস ডাক্তারের কোন সনদ দেখাতে পারেননি। নারী রোগীদের তিনি কোন নার্সের সাহায্য ছাড়াই একাই আল্ট্রাসনোগ্রাম করতেন। জহিরুল ইসলাম কুমিল্লার বুড়িচংয়ের জগতপুর গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে।

র‌্যাব-১১ এর মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব বলেন, ডাক্তার না হয়েও ডাক্তার হিসেবে জহিরুল ইসলাম রোগীদের সেবা দিয়ে আসছিলেন। তিনি মূলত আল্ট্রাসনোগ্রাম করতেন। তবে তিনি কোন সার্টিফিকেট দেখাতে পারেননি। তিনি ভারতের একটি প্রতিষ্ঠানে ৩ বছরের কোর্স করেছেন। যার ভিত্তিতে তিনি এখানে আল্ট্রাসনোগ্রামের রিপোর্ট লিখতেন। যা সম্পূর্ণ বেআইনি। এছাড়া জনবহুল হওয়ায় এবং ঢাকায় যাওয়ার সামর্থ অনেকের না থাকায় এই এলাকায় সাধারণ মানুষ ভালো ডাক্তারদের পায়না। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন ভুয়া ডিগ্রীধারী ডাক্তারদের দৌরাত্ম অনেক বেশী। ২০১৭ সালের পরে প্রতিষ্ঠানটির পুণঃনিবন্ধন না থাকায় মালিকপক্ষকে কাগজ-পত্র ঠিক না করা পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।









Leave a reply