দেড় যুগ পর স্ত্রী সন্তানকে স্বীকৃতি দিয়ে কারামুক্তি

|

অবশেষে দেড় যুগ পর স্ত্রী মালা আর সন্তান মিলনের স্বীকৃতি দিয়ে কারামুক্ত হলেন ইসলাম। পাশাপাশি তার জামিন বহাল থাকবে বলে জানিয়েছেন সর্বোচ্চ আদালত। সকালে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনর নেতৃত্বাধীন ছয় সদস্যের আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালত জানান, যাবজ্জীবন সাজা মওকূফের বিষয়ে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এর আগে গত ২০০০ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি ঝিনাইদহের লক্ষীপুর গ্রামের মেয়ে মালার সাথে একই গ্রামের ইসলামের প্রেমের সম্পর্ক হয়। লোকচক্ষুর আড়ালে স্বামী-স্ত্রী হিসাবে বসবাস করতে থাকেন তারা। ২০০১ সালের ২১ জানুয়ারী জন্ম নেয় একটি পুত্র সন্তান। তখন মালার পরিবার ও স্থানীয়রা বিয়ের জন্য বললে ইসলাম মালার সাথে তার বিয়ে ও মিলনের পিতৃত্ব অস্বীকার করেন। এরপর মালার পিতা ইসলামের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করেন। পরবর্তীতে এ মামলায় বিচারিক আদালত ইসলামকে যাবজ্জীন কারাদণ্ড দেন। পরে হাইকোর্টের রায়ের পর সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগও ইসলামের সাজা বহাল রাখেন। পরে ভুল ভাঙলে দুই পরিবারের সম্মতিতে চলতি বছরের ৩১ জুলাই যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে আবারও বিয়ে হয় মালা ও ইসলামের। যার কাবিননামা বৃহস্পতিবার দেশের সর্ব্বোচ্চ আদালতেও দাখিল করা হয়।

আপিল বিভাগ নজিরবিহীন সেই মামলায় যাবজ্জীবন প্রাপ্ত ইসলামকে ১ মাসের জামিন দেন।









Leave a reply