ইরানি ট্যাংকারের ক্যাপ্টেনকে ঘুষ দিতে চাইলো যুক্তরাষ্ট্র

|

সিরিয়ামুখী ইরানি তেল ট্যাংকারের ভারতীয় ক্যাপ্টেনকে ব্যক্তিগতভাবে কয়েক লাখ ডলার সেধেছেন যুক্তরাষ্ট্রের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বুধবার এ খবর নিশ্চিত করেছে।

দ্য ফিন্যান্সিয়াল টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, ক্যাপ্টেন অখিলেশ কুমারকে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ইরানবিষয়ক প্রধান ব্রিয়ান হুক একটি মেইল বার্তায় এ প্রস্তাব দিয়েছেন। আদ্রিয়ান দরিয়া-১ নামে তেল ট্যাংকারটি যদি তিনি এমন একটি দেশে নিয়ে যান, যেখান থেকে সেটিকে জব্দ করা যাবে, তবে স্বাচ্ছন্দ্য জীবনযাপনের জন্য তাকে কয়েক লাখ মার্কিন ডলার দেয়ার সুখবর দেয়া হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, আমরা ফিন্যান্সিয়াল টাইমসের প্রতিবেদন দেখেছি। কাজেই সেখানে যা লেখা হয়েছে, তা সঠিক বলে নিশ্চিত করছি।

ইরানি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিদেশি সন্ত্রাসী সংগঠনকে সহায়তার পরিণতি সম্পর্কে অবগত করতে আমরা বেশ কয়েকটি জাহাজ কোম্পানিসহ অনেক জাহাজের ক্যাপ্টেনের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি।

দেশের বাইরে ব্রিটেনের ভূখণ্ড জাবাল আল-তারিকে ছয় সপ্তাহ ধরে আটক ছিল আদ্রিয়ানা দরিয়ান-১। তখন অভিযোগ করা হয়েছিল, ইউরোপীয় ইউনিয়নের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সিরিয়ায় তেল নিয়ে যাচ্ছে ওই ট্যাংকার।

কিন্তু ইউরোপীয় ইউনিয়নের নিষেধাজ্ঞা আছে এমন দেশে যাবে না বলে লিখিত প্রতিশ্রুতি দিলে গত ১৮ আগস্ট ট্যাংকারটিকে ছেড়ে দেয় ব্রিটেন। ছেড়ে দেয়ার আগে এটির নাম ছিল গ্রেইস-১।

ট্যাংকারটি ছেড়ে দেয়ার প্রতিবাদ জানিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। ক্যাপ্টেনকে ব্রিয়ান হুকের অর্থ দেয়ার প্রস্তাব নিয়ে মশকরা করেছেন ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ।

তিনি বলেন, দস্যুতায় ব্যর্থ হয়ে যুক্তরাষ্ট্র ব্ল্যাকমেইলের আশ্রয় নিয়েছে। তাদের ইরানি তেল দেয়া হলে ক্যাপ্টেনকে কয়েক লাখ ডলার দেয়ার প্রস্তাব কিংবা নিষেধাজ্ঞার হুমকি দেয়া হয়েছে।

জারিফকে পাল্টা জবাব দিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রধান মুখপাত্র মরগ্যান ওরটাগুস।

তিনি অভিযোগ করেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ইরানের ভবিষ্যৎ তেল বিক্রয়ের সমপরিমাণ ঋণ পেলেই চুক্তিতে ফিরে যাওয়ার দাবি তেহরানের স্পষ্ট ব্ল্যাকমেইল। ইরান দেড় হাজার কোটি ডলার দাবি করেছে ইউরোপের কাছে।

ইরান বলছে, অর্থনীতিকে সচল রাখতে অর্থ পেলেই ২০১৫ সালে ছয় বিশ্বশক্তির সঙ্গে সই করা পরমাণু অস্ত্রচুক্তিতে ফেরত যাবে তারা।

মার্কিন কর্তৃপক্ষ বলছে, জাবাল আল-তারিকে জাহাজের ক্যাপ্টেনের দায়িত্ব নেয় ৪৩ বছর বয়সী অখিলেশ কুমার। কর্মকর্তার মেইলের কোনো জবাব না দেয়ায় শুক্রবার মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয় ওই ট্যাংকার ও তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।









Leave a reply