টেস্ট খেলায় আগ্রহ নেই সাকিবের: পাপন

|

Shakib Al Hasan of Bangladesh appeals for lbw against Kieran Powell of West Indies during day 3 of the 2nd Test between West Indies and Bangladesh at Sabina Park, Kingston, Jamaica, on July 14, 2018. / AFP PHOTO / Randy Brooks

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন, ‘টেস্ট খেলায় আগ্রহ নেই সাকিবের। যে কারণে সে টেস্টে অধিনায়কত্ব করতে চাচ্ছে না।’

বুধবার মিরপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপে বিসিবি সভাপতি আরও বলেন, আমি এখনও মনে প্রাণে বিশ্বাস করি সাকিব-তামিম-মুশফিক-মাহমুদউল্লাহরা যে কোনো দলের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করার সক্ষমতা রাখে। কিন্তু আফগানিস্তানের মতো তরুণ দলের বিপক্ষে ঘরের মাঠে একজন ব্যাটসম্যানও সেঞ্চুরি পাবেন না, এটা হতে পারে না।

১৯ বছর ধরে টেস্ট ক্রিকেট খেলছে বাংলাদেশ। অন্যদিকে গত বছর ভারতের বিপক্ষে টেস্ট খেলার মধ্য দিয়ে সাদা পোশাকের ক্রিকেটে আনুষ্ঠানিক অভিষেক হয় আফগানিস্তানের। বাংলাদেশ ইতিমধ্যে ১১৫টি টেস্ট খেলেছে। আর আফগানিস্তান খেলল তৃতীয় টেস্ট। অথচ তৃতীয় টেস্ট খেলতে নেমেই সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বাধীন দলকে হারিয়ে দিল আফগানরা।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে ২২৪ রানের বিশাল ব্যবধানে পরাজয় নিয়ে বিসিবি সভাপতি বলেন, আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে হেরে যাওয়া দু:খজনক। অভিজ্ঞ দল হয়েও একটি তরুণ দলের বিপক্ষে নিজেদের মাঠে সাকিবরা হেরে যাওয়ায় আমি হতাশ।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে হেরে যাওয়ার পর টেস্ট দলের অধিনায়কত্ব নিয়ে অনীহা প্রকাশ করেন সাকিব আল হাসান। তিনি জানিয়েছেন দলের বর্তমান অবস্থার কারণে বাধ্য হয়ে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। সাকিবের এমন বক্তব্যে বিরক্ত বিসিবি সভাপতি।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘টেস্ট খেলায় আগ্রহ নেই সাকিবের। এজন্য সে অধিনায়কত্ব নিয়ে এমন কথা বলছে।’

এর আগে ২০১৭ সালে সেপ্টেম্বরে টেস্ট থেকে বিশ্রাম নিতে ছয় মাসের ছুটির আবেদন করেন সাকিব। বিসিবি অবশ্য তিন মাসের ছুটি মঞ্জুর করেছিল। ছুটিতে থাকায় দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দুই টেস্টের সিরিজ খেলা হয়নি সাকিবের।

টেস্ট ক্রিকেট খেলায় অনীহার কারণেই সাকিব বিশ্রাম নেয়। এমনটি জানিয়ে বিসিবি সভাপতি, ‘টেস্ট খেলার ইচ্ছা নেই বলেই হয়তো মাঝেমধ্যে টেস্টের সময় বিশ্রাম নিতো সে, আমাদের ধারণা তেমনই।’









Leave a reply