ঢাবি উপাচার্য ও ব্যবসায় শিক্ষার ডিন’র পদত্যাগ চায় ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ

|

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান ও বিজনেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের পদত্যাগসহ তিন দফা দাবি জানিয়েছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনে গড়া ওঠা সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের।

আজ বুধবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানান তারা।

গত মার্চে ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদে ছাত্রলীগের ৩৪ জন সাবেক ও বর্তমান নেতাকে নিয়মবহির্ভূতভাবে ভর্তির সুযোগ দেওয়ার প্রতিবাদে এর আয়োজন করা হয়।

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধনে শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেন। শিক্ষার্থীদের অন্য দুটি দাবি হলো- অবৈধভাবে ভর্তি হওয়া ৩৪ ছাত্রকে অছাত্র ঘোষণা করা এবং অবৈধ ছাত্রত্ব নিয়ে যারা ডাকসুতে নির্বাচিত হয়েছেন তাদের পদ শুণ্য ঘোষণা করে উপনির্বাচন দেয়া।

মানববন্ধনে কোটা সংস্কার আন্দোলনের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন বলেন, ‘৩৪ জনকে নিয়ম লংঘন করে ভর্তি করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সাধারণ ছাত্রদের দিকে নজর না দিয়ে ছাত্রলীগের প্রতিনিধিত্ব করছে।’ এসময় যাদেরকে অবৈধভাবে ছাত্রত্ব দেয়া হয়েছে তাদের ছাত্রত্ব বাতিল করার দাবি জানান তিনি।

যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হাসান বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যে কলঙ্কজনক অধ্যায় রচিত হয়েছে তার মাস্টারমাইন্ড হচ্ছেন বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান। আমারা এমন একজন উপাচার্য পেয়েছি যিনি রাতের আধারে চিরকুটের মাধ্যমে একটি সংগঠনের নেতাদের বিশেষ ক্ষমতাবলে ভর্তি করে।’

এসময় ফারুক হাসান ভিসিকে ‘চিরকুট ভিসি’ হিসেবে অবিহিত করেন এবং অনতিবিলম্বে তার এবং জালিয়াতির সাথে সম্পৃক্ত বিজনেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের পদত্যাগ দাবি করেন। একইসঙ্গে ‘অবৈধভাবে’ ভর্তি হয়ে ডাকসুতে নির্বাচিত ছাত্রলীগ নেতাদের পদ শুন্য ঘোষণা করে সেই পদগুলোতে উপনির্বাচনের দাবি করেন তিনি।









Leave a reply