গলা কেটে চোখ তুলে ব্যবসায়ীকে হত্যা!

|

Portrait of young frustrated businessman having problems in his work

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে সাইদুর রহমান নামের এক ফল ব্যবসায়ীকে গলা কেটে চোখ তুলে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার মেঘনপাড়ের বাহেরচর গ্রামে মেঘনা নদীর তীর থেকে গলা কাটা লাশ উদ্ধার করে বাাঞ্ছারামপুর মডেল থানা পুলিশ।

নিহত ব্যবসায়ি বাহেরচর গ্রামের মালু মিয়ার ছেলে। দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন জেলা পুলিশে নবীনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেহেদী হাসান, বাঞ্ছারামপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সালাহ উদ্দিন চৌধুরী, ওসি তদন্ত কামরুজ্জামান। পরে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

বাঞ্ছারামপুর মডেল থানা পুলিশ জানায়, বাঞ্ছারামপুর উপজেলার মানিকপুর ইউনিয়নের বাহেরচর গ্রামের মালু মিয়ার ছেলে ফল ব্যবসায়ী ছাইদুর রহমানের রবিবার রাত ৯ টার পর থেকে মোবাইল ফোন বন্ধ পান পরিবারের সদস্যরা। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করে সন্ধান পায়নি তারা। সোমবার বেলা ১১ টার দিকে মেঘনা নদীতে এক যুবকের লাশ ভাসতে থাকলে তার পরিবারের সদস্যরা গিয়ে তার লাশ সনাক্ত করে। তাকে গলা কেটে হত্যা করে নদীতে ফেলে দেওয়া হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নিহতের স্ত্রী রাহিমা বেগম জানান আমার স্বামীর সাথে আরোও কোনো ঝগড়া বিবাদ ছিল না, কে বা কারা কেন খুন করছে আমি কিছুই কইতে পারতেছি না।

নিহতের পিতা মালু মিয়া জানান, রবিবার রাত ৯ টার পর থেকে আমার ছেলের মোবাইল বন্ধ পাই। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও তাকে পাইনি। সকাল ১১ টার দিকে মেঘনা নদীতে একটি লাশ ভাসছে এ খবর পেয়ে গিয়ে দেখি এটা আমার ছেলের লাশ।

এই ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন জানান, এই হত্যার বিষয়ে আমরা খতিয়ে দেখছি। পাশপাশি রহস্য উদ্ঘাটনে কাজ করছে পুলিশ।









Leave a reply