বাউফলে কলেজ ছাত্রীকে প্রকাশ্যে অপহরণ

|

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

পটুয়াখালীর বাউফলে কলেজে যাওয়ার পথে প্রকাশ্যে এক ছাত্রীকে (১৮) মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে গেছে স্থানীয় বখাটে সোহাগ ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা। উপজেলার বগা ইউনিয়নের বালিয়াচাঁদপাল এলাকায় সোমবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। অপহরণের শিকার ওই ছাত্রী স্থানীয় একটি কলেজের একাদশ শ্রেণির মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে বাউফল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার বাদী জানায়, প্রায় দুই বছর ধরে তার মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন মো. সোহাগ সন্ন্যামত (২২) নামে এক বখাটে তরুণ। তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ২০১৭ সালে ওই ছাত্রীকে প্রকাশ্যে লাঞ্চিত করে সোহাগ। ওই ঘটনায় বাউফল থানায় মামলা করেন ছাত্রীর মা। ওই মামলায় সোহাগ দীর্ঘদিন কারাভোগ করলেও থেমে থাকেননি সোহাগ। বর্তমানে মামলাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।

তিনি আরো জানান, তার মেয়েকে কলেজে আসা-যাওয়ার পথে উত্ত্যক্ত করা ছিল নিত্যদিনের ঘটনা। সোমবার ওই ছাত্রীটি সকালে বাড়ি থেকে কলেজে যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে ৮টার দিকে বগা-মিলঘর সড়কের চানমিয়া মাস্টার বাড়ির সামনে পৌঁছালে সোহাগের নেতৃত্বে চার-পাঁচজনের একটি দল তিনটি মোটর সাইকেল নিয়ে ছাত্রীটির গতিরোধ করে অস্ত্রের মুখে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে যায়।

মামলার আসামি বখাটে সোহাগের বাড়ি বগা ইউনিয়নের কৌখালী গ্রামে। তার বাবার নাম আবু তালেব ওরফে আবুল কালাম সন্ন্যামত।

জানতে চাইলে বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ওই ছাত্রীর মা মিনারা বেগম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ৩০।

তিনি জানান, মামলায়ে সোহাগকে প্রধান আসামি করে আরো ৭/৮জনকে আসামি করা হয়েছে। ঘটনার পরপরই ছাত্রীকে উদ্ধারসহ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।









Leave a reply