উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নারী ভাইস চেয়ারম্যানকে মারপিটের অভিযোগ

|

বগুড়া ব্যুরো:

বগুড়ার শিবগঞ্জে উপজেলা পরিষদের নারী ভাইস চেয়ারম্যানকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। বুধবার বিকেলে উপজেলা পরিষদ চত্বরে এই ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী নারী ভাইস চেয়ারম্যান ফাহিমা আকতার যমুনা নিউজকে জানান, উপজেলা পরিষদের বেশ কয়েকটি মাসিক সভায় তিনি বিভিন্ন প্রকল্পের বরাদ্দ বিষয়ে চেয়ারম্যানের তথ্য চাইলে তিনি তথ্য না দিয়ে উল্টো তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে হুমকি-ধামকিও দেন।

মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় ভোটার দাবি করে অজ্ঞাত একজন নারী তাকে ফোন দিয়ে দেখা করতে চাইলে তিনি উপজেলা পরিষদে যান। এসময় ৭/১০ জন নারী তাকে আচমকা মারপিট করতে শুরু করেন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করেন। তিনি দাবি করেছেন, উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ রিজু লোকজন দিয়ে তাকে মারপিট করিয়েছেন। সন্ধ্যায় ফাহিমা আকতারকে ভর্তি বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমেদ রিজু দাবি করেছেন, ঘটনার সময় তিনি উপজেলা পরিষদে ছিলেন না, বগুড়া শহরে অবস্থান করছিলেন। পরে জেনেছেন, বয়স্ক ভাতা ও বিধবা ভাতার কার্ড তৈরি করে দেয়ার নামে ফাহিমা আকতার বেশ কিছু নারীর কাছ থেকে উৎকোচ নিয়েছিলেন। দীর্ঘদিনেও কার্ড না পাওয়ায় বুধবার বিকেলে তারা নারী ভাইস চেয়ারম্যানকে পরিষদে দেখতে পেয়ে মারপিট করেছে। ফাহিমা আকতার সাথে নিজের কোনো বিরোধ নেই বলেও দাবি করেন রিজু।

শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান রাতে যমুনা নিউজকে জানান, বিষয়টি নিয়ে কেউ থানায় কোনো অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।









Leave a reply