২০০ জনের ফেসবুক আইডি হ্যাক করেছে ২০ বছরের কাউছার!

|

মো. কাউছার আহমেদ ওরফে কাউসিন ওরফে জিসান ওরফে সোলেমান খান ওরফে আলিফ ওরফে মুকুল দাস ওরফে কামরুল ইসলাম ওরফে সায়ের মোহাম্মদ ওরফে মোসলেম খাঁন। বয়স মাত্র ২০। প্রশ্ন জাগতে পারে, একটা মানুষের এতো নাম? এর বাইরেও আরও অনেক নাম আছে এই তরুণের। ২০০ ফেসবুক আইডি হ্যাক করে নিজের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে সে। আইডি হ্যাক করে সে ভুক্তভোগীদের হয়রানি করতো আর তাদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিতো। এহেন অপকর্মের কথা কাউছার স্বীকারও করেছে।

বুধবার রাতে কুমিল্লার কোটবাড়ী এলাকা থেকে এই প্রতারককে আটক করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সাইবার সিকিউরিটি এন্ড ক্রাইম বিভাগ। তার কাছ থেকে ২টি মোবাইল ফোন, নগদ ৫ লক্ষ টাকা জব্দ করা হয়। তার মোবাইল ব্যাঙ্কিং অ্যাকাউন্টেও ৭৭ হাজার টাকার তথ্য পাওয়া গেছে।

সাইবার ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার নাজমুল ইসলাম জানান, কাউসারের প্রতারণাটা বেশ অভিনব। মূলত, ফেসবুক আইডি ফিশিং লিংকের মাধ্যমে হ্যাক করত। হ্যাককৃত আইডির টাইমলাইনে ও ইনবক্সে অশ্লীল ছবি/ভিডিও, অশ্লীল কথাবার্তা লিখে পোস্ট করে সম্মানহানির ভয় দেখিয়ে আইডি ফেরৎ দেয়ার শর্তে হ্যাকার বিভিন্ন অংকের টাকা দাবি করতো। বেশ কিছু ক্ষতিগ্রস্ত হ্যাকারকে বিকাশের মাধ্যমে টাকা প্রেরণ করতে বাধ্য হয়েছে। মোবাইল ব্যাঙ্কিং, হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক, স্ক্রিল এবং জিমেইল কোম্পানি এবং প্রযুক্তির সাহায্যে হ্যাকারকে শনাক্ত করে আটক করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে কাউছার জানায়, ফেসবুক আইডি হ্যাক করে এবং কৌশলে ক্ষতিগ্রস্তদের আইডি ফেরত দেয়ার কথা বলে অর্থ আদায় করতো সে। তার বিরুদ্ধে রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।









Leave a reply