বিয়ে ছাড়াই বিদেশি যুগলরা সৌদির হোটেলে একসঙ্গে থাকতে পারবেন

|

সৌদি আরবে এখন থেকে পরস্পরের সাথে বিবাহিত নন এমন বিদেশি যুগলদেরও হোটেল কক্ষ ভাড়া দেওয়া হবে বলে দেশটির নতুন ভিসানীতিতে জানানো হয়েছে।

আগে সৌদি আরবে কোনো হোটেলে একই কক্ষে থাকার জন্য যে কোনো যুগলকে বিয়ের প্রমাণপত্র দেখাতে হত। বিদেশিদের পাশাপাশি সৌদি নারীরাও চাইলে এখন থেকে হোটেলে একা থাকতে পারবেন। খবর বিবিসির।

বিদেশি পর্যটকদের আকর্ষণ ও পর্যটন খাতের বিকাশে রক্ষণশীলতার বেড়াজাল ভেঙে সৌদি সরকার যেসব নতুন পদক্ষেপ নিয়েছে, অবিবাহিত বিদেশি নারী-পুরুষদের হোটেল কক্ষ ভাড়া দেয়ার সিদ্ধান্ত তার একটি।

সৌদি আরবের কমিশন ফর ট্যুরিজম অ্যান্ড ন্যাশনাল হেরিটেজের এক ঘোষণায় বলা হয়, হোটেলে চেক-ইনের সময় (যুগলদের ক্ষেত্রে) সকল সৌদি নাগরিককে তাদের পারিবারিক পরিচয়পত্র বা সম্পর্কের প্রমাণ দেখাতে হবে। তবে বিদেশি নাগরিকদের জন্য এটি প্রযোজ্য হবে না। সকল নারী, এমনকী সৌদি নারীরাও পরিচয়পত্র দিয়ে হোটেল কক্ষে একা থাকতে পারবেন।

নতুন এ ভিসা নীতিতে বিদেশি নারীদের ক্ষেত্রে শরীর সম্পূর্ণ ঢেকে রাখা ঢিলেঢালা পোশাক আবায়া পরার বিধানও শিথিল করা হয়েছে।

আবায়া পরতে বাধ্য না করলেও সৌদি সংস্কৃতির প্রতি সম্মান দেখিয়ে বিদেশি নারী পর্যটকরা ‘শালীন পোশাক’ পরবেন বলে আশা প্রকাশ করেছে সৌদি কমিশন ফর ট্যুরিজম অ্যান্ড ন্যাশনাল হেরিটেজ।

পোশাক ও হোটেলে থাকার ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ শিথিল হলেও অ্যালকোহলে নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকছে।

সুন্নি সংখ্যাগরিষ্ঠ এ দেশটিকে একসময় পৃথিবীর সবচেয়ে কঠোর বিধিনিষেধের দেশ হিসেবে দেখা হলেও সাম্প্রতিক সময়ে বিদেশি পর্যটক ও বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে রিয়াদ নানা ধরনের চেষ্টা করছে।









Leave a reply