লম্বা হলেই বুদ্ধি বেশি? কী বলছে গবেষণা?

|

আপনার কতটা বুদ্ধি, তা নির্ভর করে আপনার মস্তিষ্কের গঠনের ওপর, এ তো আমার আপনার সবার জানা। কিন্তু বুদ্ধিমত্তা কি শুধুই নির্ভর করে আপনার মস্তিষ্কের ওপর? সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে দেহের বিভিন্ন অংশ দেখেই আঁচ করা যায়, কার বুদ্ধিমত্তা বেশি, কার একটু কম।

দেহের তুলনায় বড় মাথা

শোনা যায় ঈশ্বর চন্দ্র বিদ্যাসাগরের তেমনটা ছিল। সম্প্রতি মলিকিউলার সাইকিয়াট্রি জার্নালে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে ব্রিটেনের প্রায় ৫ লক্ষ মানুষ এই সমীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন। এদের রক্তের নমুনা, প্রস্রাব, লালা পরীক্ষা করে দেখা গিয়েছে শৈশবে যাদের দেহের তুলনায় মাথা বড় হয়, তাঁদের পড়াশোনা করার ঝোঁক বেশি থাকে। কলেজ ডিগ্রি পাওয়ার হারও এদের তুলনামূলক বেশি।

বাঁ-হাতি

এথেন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০০ জন পড়ুয়ার ওপর একটি সমীক্ষা চালিয়েছিল। সমীক্ষায় অংশগ্রহণ করা পড়ুয়াদের মধ্যে অর্ধেক বাঁ-হাতি। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে এঁদের স্মৃতিশক্তি বেশি হয়, এবং মানসিক নমনীয়তা তুলনামূলক ভাবে বেশি হয়।

ভুঁড়ি

রোগা মোটা হওয়ার ওপর শরীরের সুস্থতা নির্ভর করে, তাই-ই নয়। বছর পাঁচেক ধরে করা ২২০০ জনের ওপর চালানো গবেষণায় ধরা পড়েছে বডি-মাস-ইনডেক্স ২০ অথবা তার কম থাকলে স্মৃতিশক্তি প্রখর হয়। স্বাস্থ্যকর বিএমআই হচ্ছে ১৮.৫ থেকে ২৪.৯। BMI ৩০ অথবা তার বেশি হয়ে গেলে স্মৃতিশক্তি অনেকটাই দুর্বল হয়ে পড়ে।

লম্বা পা

ব্রাউন এবং প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় দেখা গিয়েছে লম্বা মানুষেরা বেশি স্মার্ট। জীবনে বেশি রোজগারের সম্ভাবনেও এদের বেশি। জীবনে সফল হওয়ার সম্ভাবনা লম্বাদেরই তুলনামূলক ভাবে বেশি।









Leave a reply