প্রত্যাবাসন সমঝোতা পরও রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর নৃশংসতা: এইচআরডব্লিউ

|

বাংলাদেশের সাথে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সমঝোতা হওয়ার পরও, রাখাইনে নৃশংসতা চালিয়েছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। ২৩ নভেম্বর ওই সমঝোতা সইয়ের দু’দিন পরই আগুন দেয়া হয় মংডুর রোহিঙ্গা গ্রামে। স্যাটেলাইট ছবির ভিত্তিতে এ অভিযোগ করেছে নিউইয়র্কভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ।

সবশেষ, ২ ডিসেম্বরও রাখাইনে কয়েকটি গ্রাম পোড়ানোর প্রমাণ পেয়েছে তারা। যে কারণে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সমঝোতাকে মিয়ানমারের ‘লোক দেখানো কৌশল’ বলে অভিহিত করেছে সংস্থাটি। এইচআরডব্লিউ’র হিসেবে, উত্তেজনা কমার পরও অক্টোবর-নভেম্বরে নতুন করে পুড়িয়ে দেয়া হয় রোহিঙ্গাদের ৪০টি গ্রাম। এই নিয়ে, ২৫ আগস্ট সহিংসতা শুরুর পর ৩৫৪টি রোহিঙ্গা গ্রাম পোড়ানোর তথ্য দিলো সংস্থাটি।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের ডেপুটি এশিয়া ডিরেক্টর ফিল রবার্টসন বলেন, একদিকে মিয়ানমারের সরকার বলছে রাখাইনে কিছুই হচ্ছে না। রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে আগ্রহী তারা। অথচ, সেই একই সময়ে রোহিঙ্গাদের গ্রাম জ্বালিয়ে দেয়া হচ্ছে রাখাইনে।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply