মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতে ভেসে উঠছে মৃত মাছ ও জলজ প্রাণী

|

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:

মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতের পানিতে বিভিন্ন প্রজাতির মাছসহ অন্যান্য জলজ প্রাণী মরে ভেসে উঠেছে। এতে জলপ্রপাত এলাকার আশপাশে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়েছে। তবে মাছ মারা যাওয়ার কারণ এখনো জানা যায়নি। পানি পরীক্ষা করে কোনও ধরনের রাসায়নিক জাতীয় বিষ পাওয়া যায়নি।

বন বিভাগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকালে পর্যটক ও স্থানীয় লোকজন মাধবকুণ্ডের ছড়ার পানিতে মাছসহ বিভিন্ন ধরনের জলজ প্রাণী ভেসে উঠতে দেখেন। মরা মাছের দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়েছে এলাকায়। মৃত জলজ প্রাণীর মধ্যে পাহাড়ি বামাস মাছ, কাঁকড়া, পুঁটি, ব্যাঙ, পাহাড়ি চিংড়ি, শুকনো জায়গায় বিচরণে সক্ষম পাহাড়ি মাছ পিপলা, ছোট বাইন, সরপুঁটিসহ বিভিন্ন ধরনের জলজ কীটপতঙ্গ।

দুর্গন্ধ থেকে বাঁচতে স্থানীয় লোকজন ও মাধবকুণ্ড ইকোপার্কের কর্মীরা মরা মাছ পানি থেকে তুলে সরিয়ে নেন। তবে আজও বেশ কিছু বিভিন্ন ধরনের জলজ প্রাণী পানিতে ভেসে থাকতে দেখা যায় তবে সংখ্যাটা আগের চেয়ে কমে এসেছে।

স্থানীয় লোকজনের ধারণা, পাহাড়ি ছড়ায় অনেক ধরনের মাছ থাকে। এই মাছ ধরার জন্য মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতের ওপরের অংশে উজানে কেউ বিষ প্রয়োগ করতে পারে। ওপর থেকে গড়িয়ে পড়া জলপ্রপাতের পানিতে দুর্গন্ধ রয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা এ জে লাভলু বলেন, ঘণ্টাখানেক এখানে ছিলাম। পানির মধ্যে বেশ কিছু মরা মাছ ভেসে থাকতে দেখি। চারপাশের বাতাসে খুব দুর্গন্ধ ছড়িয়েছে। পানিতে গন্ধ ছিল।

বড়লেখা উপজেলার অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা কুলাউড়া উপজেলা জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা সুলতান মাহমুদ বলেন, ’মাছ মরার কারণ বলা যাচ্ছে না। তবে পানি পরীক্ষা করে দেখা গেছে পানির মান স্বাভাবিক আছে। পানিতে কোনও সমস্যা নেই। পানিতে রাসায়নিক জাতীয় বিষ পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে, একজাতীয় বিষলতা আছে। বিষলতা পিসে কেউ রস প্রয়োগ করে থাকতে পারে, এই বিষলতার বিষ পানি পরীক্ষায় মিলেনি। আমরা আগামীকাল ঔষধ প্রয়োগ করবো তাহলে আর মাছ মারা যাবে না।’









Leave a reply