শিক্ষার্থীরা ‘টাকা’ দিয়ে খাবার কিনেন দেখে মুখে করে পাতা নিয়ে দোকানে কুকুর!

|

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ কলম্বিয়া। দেশটির একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হলো ’Diversified Technical Education Institute of Monterrey Casanare’। এই ক্যাম্পাসে বছর পাঁচেক ধরে একটি কুকুর শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মধ্যে বেশ পরিচিত। বলতে গেলে ক্যাম্পাসটির এক ধরনের অভিভাবকে পরিণত হয়েছে নিগ্রো নামের কুকুরটি। দিনরাত ক্যাম্পাস পাহারা দেয়াই তার কাজ।

বিনিময়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বেশ যত্নই পায়। খাওয়ার সময় লোকজন তাদের খাবার থেকে ভাগ দেন তাকে। অনেক সময় শিক্ষার্থীরা খাবার কেনার জন্য ক্যাম্পাসের একটি দোকানে লাইন ধরেন। নিগ্রো ওখানে গিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে। খাবার কেনার পর নিগ্রোকে কেউ কেউ কিছু খাবার দেন। এভাবেই চলছিল।

কিন্তু একদিন এমন একাণ্ড করে বসলো নিগ্রো, যা কেউ ভাবতেই পারেনি। শিক্ষার্থীরা যখন দোকানটিতে যেতেন তখন অর্থের বিনিময়ে কিছু পণ্য কিনতেন। অর্থাৎ, কুকুরটি দেখতো তারা কিছু দিচ্ছে, এবং বিনিময়ে দোকানী তাদেরকে খাবার দিচ্ছে।

একদিন কুকুরটি গাছের পড়ে থাকা একটি পাতা মুখে করে গিয়ে দোকানের কাউন্টারে দাঁড়িয়ে লেজ নাড়াতে লাগলো! দোকানদার তাকে হতাশ করলেন না। পাতাটি রেখে একটি বিস্কুট দিয়ে দিলেন নিগ্রোকে।

স্কুলটির শিক্ষক এনজেলা গার্সিয়া বার্নাল ‘দ্য ডোডো’ ডটকমকে বলেন, এরপর নিয়মিতই সে গাছের পাতা নিয়ে দোকানে হাজির হতে লাগলো, এবং বিনিময়ে খাবারও দেয়া হচ্ছিল তাকে। দোকানটিতে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছেন গ্ল্যাডিস ব্যারেটো।

তিনি জানালেন, ‘বিস্কুটের জন্য সে প্রতিদিন আসে। সব সময়ই পাতা দিয়ে সে মূল্য পরিশোধ করে! এবং এটা প্রতিদিনের ঘটনা।’ দ্য ডোডো ডটকম কুকুরটির কাউন্টারে পাতা নিয়ে আসা এবং বিনিময়ে বিস্কুট নিয়ে চলে যাওয়ার ছোট্ট একটি ভিডিও ক্লিপও প্রকাশ করেছে।









Leave a reply