অবশেষে রেনিটিডিন নিষিদ্ধ করে গণবিজ্ঞপ্তি

|

দেশে সব ধরনের রেনিটিডিন জাতীয় ঔষধ উৎপাদন, বিক্রয়, বিতরণ ও রফতানি স্থগিত করেছে ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর।

গতকাল বুধবার অধিদফতরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়; যা আজ বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সর্বসাধারণের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, ভারতের মেসার্স সারাকা ল্যাবরেটিজ লিমিটেড ও মেসার্স এস এম এস লাইফ সাইন্স থেকে আমদানিকৃত রেনিটিডিন হাইড্রোক্লোরাইড কাঁচামাল এবং ওই কাঁচামাল দিয়ে উৎপাদিত ফিনিশড পণ্যের নমুনা অধিদফতরের ব্যবস্থাপনায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্বীকৃত ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষা করা হয়।

“পরীক্ষার ফলাফলে কাঁচামাল ও ফিনিশ প্রোডাক্ট এমডিএমএ ইম্পিউরিটি গ্রহণযোগ্য মাত্রার চেয়ে অধিক পাওয়া যায়। এ কারণে জনস্বার্থে দেশের সব ধরনের রেনিটিডিন জাতীয় ওষুধ উৎপাদন বিক্রয় ও বিতরণ ও রফতানি স্থগিত করা হলো”, বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

এর আগে গত ২৯ সেপ্টেম্বর ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের সভাকক্ষে বাংলাদেশ ওষুধ শিল্প সমিতির নেতাদের সঙ্গে আলোচনাক্রমে রেনিটিডিন ওষুধের কাঁচামাল আমদানি, উৎপাদন ও বিক্রির ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করে অধিদফতর।

সম্প্রতি বিভিন্ন দেশ রেনিটিডিনের উৎপাদন, বিক্রি ও সেবন নিষিদ্ধ করার পর বাংলাদেশও এ পদক্ষেপ নিল। বিশ্বের শীর্ষ স্থানীয় বেশ কয়েকটি ওষুধ কোম্পানিও তাদের রেনিটিডিন গ্রুপের ওষুধ মার্কেট থেকে প্রত্যাহার করে নিয়েছে।









Leave a reply