চুরি হওয়া নবজাতক একদিন পর মায়ের কোলে

|

বগুড়া ব্যুরো
বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল থেকে চুরি হওয়া নবজাতককে উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে শহরের কলোনি এলাকা থেকে সদর থানা পুলিশ উদ্ধার করে শিশুটিকে। এ ঘটনায় আটক করা হয়েছে এক নারীকে। বুধবার দুপুরে ভূমিষ্টের ঘণ্টাখানেক পর হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগ থেকে রেশমা বেগম নামের ওই নারী চুরি করেছিলো শিশুটিকে।

সদর থানার ওসি (তদন্ত) রেজাউল করিম জানান, শিশুটিকে উদ্ধারে বুধবার রাত থেকেই তারা শহর ও জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালান। বৃহস্পতিবার শাজাহানপুর উপজেলার কয়েকটি এলাকায় অভিযান চালালেও শিশু চুরির চক্রটি বারবার অবস্থান বদলাচ্ছিলো। সর্বশেষ রাত ১২টার দিকে শহরের লতিফপুর কলোনি এলাকার একটি বাসা থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। এসময় আটক করা হয় চুরির সঙ্গে জড়িত রেশমা বেগমকে।

উদ্ধারের পর রাত সাড়ে ১২টার দিকে সদর থানায় বাবা-মায়ের কাছে হস্তান্তর করা হয় শিশুটিকে। এসময় পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঁঞা ও শজিমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এসএম সালেহ ভূঁইয়া উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশ সুপার জানান, কলোনি এলাকায় রেশমার বোনের বাড়ি থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়েছে। তারা শিশুচুরির সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্য কী না তা নিশ্চিতে রেশমাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

বুধবার দুপুরে বগুড়ার কাহালু উপজেলার নাহিদা বেগম শজিমেক হাসপাতালে পুত্র সন্তান জন্ম দেন। ঘণ্টাখানেক পর রেশমা প্রসূতি বিভাগে ঢুকে কৌশলে মায়ের কাছ থেকে শিশুটিকে চুরি করে নিয়ে যায়।









Leave a reply