প্রথমবারের মতো ইমার্জিং টিম এশিয়া কাপের ফাইনালে বাংলাদেশ

|

আফগানিস্তানকে ৭ উইকেটে হারিয়ে প্রথমবারের মতো ইমার্জিং টিম এশিয়া কাপের ফাইনাল নিশ্চিত করল বাংলাদেশ। সৌম্য সরকারের অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সে আফগানদের দেয়া ২২৯ রানের লক্ষ্যে ৭ উইকেট আর ৬১ বল হাতে রেখেই টপকে যায় স্বাগতিকরা।

দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ম্যাচের শুরুতেই বাংলাদেশকে সাফল্য এনে দেন পেসার হাসান মাহমুদ। এরপর টপ অর্ডারের আব্দুল মালিক, শহীদুল্লাহ কামাল ও শওকত জামান তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে চাপে পড়ে আফগানরা। চাপ আরো বাড়িয়ে দেন সৌম্য সরকার মুনির আহমেদকে ফিরিয়ে। ৩৬ রানে চার উইকেটের দল তখন আফগানরা।

সেনওয়ারি ১১ রানে ফিরলে ষষ্ঠ উইকেটে সায়েদ শাফাককে নিয়ে ৬৭ রানের জুটিতে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন দারউইস রাসুল।

শাফাকের বিদায়ের পর তারিক স্টানিকজাই ফেরেন ৩৩ রানে। তবে অপ্রতিরোধ্য রাসুল তুলে নেন সেঞ্চুরি। সৌম্যর তৃতীয় শিকার হওয়ার আগে রাসুলের ১২৮ বলে ১১৪ রানের ইনিংসে আফগানদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২২৮ রান।

জবাব দিতে নেমে নাঈম-সৌম্যর ভালো শুরুটা স্থায়ী হতে দেননি আজমত উল্লাহ। ১৭ রানে নাইমের বিদায়। তবে সৌম্যকে নিয়ে এগিয়ে যান অধিনায়ক নাজমুল শান্ত। এ দুজনের ১০৭ রানের জুটিতে জয়ের ভিত পায় স্বাগতিকরা। সৌম্য ৬১ ও শান্ত ফেরেন ৫৯ রানে।

শেষ পর্যন্ত ইয়াসির রাব্বি-আফিফ হোসেনের ব্যাটে বাকি কাজটা করে বাংলাদেশ। এ দুজনের দারুণ জুটিতে আফগানিস্তানকে ৭ উইকেটে হারিয়ে প্রথমবারের মতো ইমার্জিং টিম এশিয়া কাপের ফাইনালে বাংলাদেশ। আফিফ ৪৫ ও রাব্বি ৩৮ রানে ছিলেন অপরাজিত ।









Leave a reply