হঠাৎ কাতার সফরে এরদোগান

|

এক বিশেষ ফসরে সোমবার কাতারে পৌঁছেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। তিনি কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

আনুষ্ঠানিক এই সফরে এরদোগান ও তামিমের মধ্যে আঞ্চলিক বিভিন্ন বিষয় এবং দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নিয়ে আলোচনা হবে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

আঙ্কারা এবং দোহা পরস্পরের ঘনিষ্ট মিত্র। ২০১৭ সালে উপসাগরীয় দেশগুলো কাতারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর দু’দেশের অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরও জোরালো হয়েছে। সে সময় সৌদি আরব, বাহরাইন, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং মিসর কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আনা হয়।

প্রতিবেশীদের চাপের মুখে গদি হারানোর হুমকিতে পড়ায় তামিমকে তাৎক্ষণিক সৈন্য পাঠিয়ে সামরিক সহায়তা করেন এরদোগান।

এর আগের বছর অর্থাৎ ২০১৬ সালে তুরস্কে ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানে কয়েকশ মানুষ নিহত হয়। সে সময় কাতারের আমির বিশ্বের প্রথম নেতা হিসেবে এরদোয়ানকে ফোন করেন এবং তার সরকারের প্রতি সমর্থন প্রকাশ করেন।

অপরদিকে সাম্প্রতিক সময়ে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে তুর্কি বাহিনীর অভিযানকে সমর্থন জানিয়ে বিবৃতি প্রকাশ করেছে কাতার। শুধু কাতারের সঙ্গেই নয় বরং মিসর, সৌদি এবং আমিরাতের সঙ্গে গত কয়েক বছরে তুরস্কের সম্পর্কও নড়বড়ে হয়ে গেছে।

কাতারের সাথে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আমিরাতের সম্পর্ক পূনর্গঠন এবং আমিরাতের সাথে তুরস্কের নতুন করে উত্তেজনার মধ্যেই তুর্কি প্রেসিডেন্ট দোহাতে এলেন।









Leave a reply