ধর্ষণের শিকার সাড়ে ৩ বছরের শিশুর মৃত্যু, এলাকাবাসীর বিক্ষোভ

|

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে ধর্ষণের শিকার হয়ে শিশু আবিদা সুলতানা মিমের মৃত্যুর ঘটনায় মামলা হয়েছে। সকালে পার্বতীপুর থানায় তিনজনকে আসামি করে মামলা হয়। এ ঘটনায় দুই জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে এখনো পলাতক অভিযুক্ত ধর্ষক আমজাদ হোসেন। চিকিৎসক জানায়, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মৃত্যু হয়েছে সাড়ে তিন বছরের শিশু মিমের।

ধর্ষণের পর শিশু মিমের মৃত্যুর ঘটনার বিচারে ফুঁসে উঠেছে পার্বতীপুরের রঘুনাথপুর ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের সাধারণ মানুষ। এদিকে, সন্তান হারানোর শেষ স্মৃতিটুকু হাতড়ে বেড়াচ্ছেন মা।

স্বজনদের ভাষ্য, শনিবার বিকেলে শিশুটিকে চকলেট খাওয়ানোর কথা বলে ডেকে নিয়ে যায় প্রতিবেশি আমজাদ। এরপর থেকে নিখোঁজ মিম। তার সন্ধানে করা হয় মাইকিং। তাতে যোগ দেয় অভিযুক্ত ধর্ষকও। এক পর্যায়ে আমজাদের চাচা শাহিনুল ঘটনার বিষয়ে মোবাইলে কথা বলার সময় শুনে ফেলেন আরেক প্রতিবেশি। সে সূত্র ধরে আমজাদের ঘরের তালা ভেঙ্গে মিমকে উদ্ধার করে স্বজনেরা।

গুরুতর অবস্থায় শিশুটিকে পার্বতীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক আলম মিয়া। জানান, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে হাসপাতালে নেয়ার আগেই মৃত্যু হয় মিমের। মিলেছে ধর্ষণের আলামত।

অভিযুক্ত আমজাদসহ তিনজনকে আসামি করে পার্বতীপুর থানায় মামলা করে মিমের পরিবার। গ্রেফতার করা হয়েছে ধর্ষকের চাচা ও দাদিকে।তবে এখনো পলাতক অভিযুক্ত ধর্ষক।

মিমের ধর্ষক আমজাদকে ধরতে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।









Leave a reply