বিয়ের লোভ দেখিয়ে আসামি ধরলো নারী পুলিশ

|

একাধিক খুন, ডাকাতির মামলার আসামি অনেক দিন ধরেই পলাতক। কোনভাবে তাকে গ্রেফতার করা যাচ্ছিলো না। শেষ পর্যন্ত বিয়ে করার টোপ দিয়ে আসামিকে ধরলেন এক নারী পুলিশ। এঘটনা ভারতের মধ্যপ্রদেশের ছাতারপুরের নওগাঁয়।

জানা যায়, মধ্যপ্রদেশের ছাতারপুর খাজুরাহ এলাকায় অপরাধ করেই যাচ্ছিলো আসামি বালাকৃষ্ণ। প্রতি বারই পুলিশের হাত ফস্কে পালিয়ে যায়। পুলিশও অপেক্ষা করেছিলো সুযোগের। হঠাৎ একদিন থানায় খবর আসে বালাকৃষ্ণ বিয়ে করার জন্য পাত্রী খুঁজছে। এই বার্তা পেয়ে বালাকৃৃষ্ণকে আটকের ফাঁদ পাতে থানা পুলিশ।

ছাতারপুর নওগাঁ ব্লকের গারৌলি পুলিশ চৌকির সাব ইন্সপেক্টর মাধবী অগ্নিহোত্রীর উপর ভার পড়ে বালকৃষ্ণকে ধরার। তাঁর একটি পুরনো ছবি দিয়ে বালকৃষ্ণের কাছে বিয়ের প্রস্তাব পাঠান তিনি। মাধবীর ছবিও পছন্দ হয় বালকৃষ্ণের। দেখা করার ইচ্ছেও প্রকাশ করেন বালাকৃষ্ণ। বৃহস্পতিবার বালাকৃষ্ণকে দেখা করার জন্য ডেকে পাঠান মাধবী। ঠিক হয় নওগাঁ থানাধীনা বিজোরি গ্রামে দেখা হবে বালকৃষ্ণ ও মাধবীর।

নির্দিষ্ট সময়ের আগেই মাধবী ও তাঁর টিম পৌঁছে যায় বিজোরি, সব পুলিশ কর্মী ছিলেন সাধারণ পোশাকে। কিছুক্ষণ পরেই জালে পা দিতে চলে আসে বালাকৃষ্ণ চৌবে। বালাকৃষ্ণ কিছু বুঝে ওঠার আগেই ধরা পরে মাধবীর জালে। কনে দেখতে এসে শেষে শ্রীঘরে ঢুকতে হবে তা মনে হয় স্বপ্নেও ভাবেনি বালাকৃষ্ণ!









Leave a reply