নুরুল হত্যা মামলায় গ্রেফতার কিশোরকে জামিন, সাজানো জবানবন্দি নিয়েছিল পুলিশ

|

রাজশাহীর শ্রমিক নেতা নুরুল ইসলাম হত্যা মামলায় গ্রেফতার কিশোরের ৬ মাসের জামিন মঞ্জুর করেছেন হাইকোর্ট। তার কাছ থেকে জোরপূর্বক, সাজানো জবানবন্দি আদায়ের অভিযোগ আছে পুলিশের বিরুদ্ধে। এ মামলায় নিহতের মেয়ের দাখিল করা এজাহারও পাল্টে দিয়েছিলেন তখনকার ওসি। যমুনা টেলিভিশনের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে বিষয়টি উঠে আসার পর শুরু হয় তোলপাড়। এজন্য কৃতজ্ঞতা জানান কিশোরের মা।

শ্রমিক নেতা নুরুল ইসলাম হত্যার মোড় ঘুরাতে এজাহারে কারসাজি করা হয়। নিরপরাধ এক কিশোরকে আটক করে, নির্যাতন চালিয়ে জবানবন্দি আদায় করা হয়। সেটি প্রকাশ করা হয় গণমাধ্যমে। জানানো হয়, হত্যাকাণ্ডের কারণ জানা গেছে এবং হত্যাকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

যমুনা টিভির ইনভেসটিগেশন ৩৬০ ডিগ্রিতে বেরিয়ে আসে উল্টো চিত্র। সংশোধনাগারে ওই কিশোর জানায়, নির্মম নির্যাতনের কথা। বলে, মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে তাকে ভয়ভীতি দেখানো হয়। কিশোরের মায়ের আহাজারিতেও ওঠে আসে অসহায়ত্ব।

সোমবার বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ ওই কিশোরের ৬ মাসের জামিন মঞ্জুর করেন। রোববার এ মামলায় সাবেক ওসি’র এজাহার কারসাজির প্রমাণের কথা জানান হাইকোর্টের আরেকটি বেঞ্চ। ব্যবস্থা নিতে বলেন, আইজিপি ও দুর্নীতি দমন কমিশনকে। আর মামলাটি তদন্তের ভার দিতে বলেন, পিবিআই’কে।









Leave a reply