খালেদা জিয়ার মেডিকেল রিপোর্ট সুপ্রিম কোর্টে

|

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্ট সুপ্রিম কোর্টে পাঠিয়েছে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কর্তৃপক্ষ। আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) চ্যারিটেবল মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসনের জামিন শুনানি হবার কথা রয়েছে।

বুধবার বিকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) থেকে খালেদা জিয়ার মেডিকেল রিপোর্টটি সুপ্রিমকোর্টে পাঠানো হয়।

মেডিকেল কর্তৃপক্ষ জানায়, বিএসএমএমইউ পরিচালকের সাথে পর্যালোচনা শেষে ছয় সদস্যের মেডিকেল বোর্ডের সুপারিশ সম্বলিত প্রতিবেদন জমা দেয়া হয় সুপ্রিমকোর্টে। ২৮ নভেম্বর খালেদা জিয়ার জামিন বিষয়ে সিদ্ধান্তে কথা থাকলেও তার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা জানতে মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদন চান আপিল বিভাগ। পরে, আদালত ১১ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রতিবেদন পাঠানোর নির্দেশনা দেন।

এর আগে এ মামলার শুনানির সময় গত ২৮ নভেম্বর সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবস্থা জানতে তার বিষয়ে গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছিলেন সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ। ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল বোর্ডকে এই প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। ওই দিনই আদেশের জন্য দিন নির্ধারণ করে দেন আদালত। সেই পর্যন্ত খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি মুলতবি রাখা হয়। সেদিন স্বাস্থ্য প্রতিবেদন রাষ্ট্রপক্ষ দাখিল করতে না পারায় ১২ ডিসেম্বর দিন ধার্য করে দেন আদালত।

গত বছরের ২৯ অক্টোবর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়াকে সাত বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়। পাশাপাশি ১০ লাখ টাকা টাকা জরিমানা করা হয়। এ মামলায় খালেদা জিয়ার সঙ্গে আরো তিন আসামিকে ৭ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়।

রায়ের পর ২০১৮ সালের ১৮ নভেম্বর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিচারিক আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে খালাস চেয়ে আপিল করেন খালেদা জিয়া।









Leave a reply