রাজধানী থেকে ইয়াবার চালানসহ ২ জন আটক

|

রাজধানীর উত্তর বাড্ডা এলাকা থেকে ইয়াবার একটি বড় চালানসহ ২জনকে আটক করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। থার্টি ফার্স্ট নাইট ঘিরে রাজধানীতে ঢুকেছিল মরণনেশা ইয়াবার বড় একটি চালান। আরেকটু হলেও তা চলে যেতো ইয়াবাসেবীদের হাতে হাতে। পন্যবাহী ট্রাকের ভিতর অভিনব কায়দায় আনা হচ্ছিল প্রায় ৫৫ হাজার ইয়াবা।

গোয়েন্দা পুলিশের কাছে খবর ছিল কক্সবাজার থেকে ইয়াবার বড় একটি চালান আসার। সন্ধ্যায় রাজধানীতে ঢোকার কথা থাকলেও ট্রাক এসে পৌছায় রাতে। গাড়ীর নম্বর এবং অন্যান্য তথ্যের ভিত্তিতে সব মিলে যাবার পর শুরু হয় তল্লাশী। গাড়িতে থাকা দুজনকে করা হয় জিজ্ঞাসাবাদ।।

ড্রাইভারের সিটের নিচে লুকিয়ে আনা ব্যাগে তল্লাশী করে পাওয়া যায় ইয়াবা। কিন্তু, সোর্সের দেয়া তথ্যের মতো ইয়াবার সংখ্যা না মেলায় অনেকক্ষন ধরে চলতে থাকে তল্লাশী। দেখা যায়, গাড়ির বডিতে চুম্বক দিয়ে লাগানো আছে ইয়াবা। প্লাস্টিক পলি, টেপ দিয়ে মোড়ানো প্যাকেটে এক এক করে বেরিয়ে আসে প্রায় ৫৫ হাজার পিস ইয়াবা।

কক্সবাজার থেকে একটি খালি ট্রাকে করে এগুলো আনা হচ্ছিল। নারায়নগঞ্জ এলাকা থেকে সেগুলো হাতবদল করে দেয়া হতো এক যুবকের কাছে। তার দায়িত্ব ছিল, বারিধারা এলাকায় শাহ আলম নামে ইয়াবা ব্যবসায়ীর কাছে পৌছে দেয়া।

গোয়েন্দা পুলিশ বলছে, ইয়াবার চালানটি ছিল থার্টি ফাস্ট উদযাপন ঘিরে। ইয়াবা নিয়ে এতো এতো অভিযানের পরও রাজধানীতে একসাথে এতবড় চালান আনায় কারা জড়িত তাও খতিয়ে দেখবে তারা।

পুলিশের অভিযানে প্রমাণ মিললো, কক্সবাজার থেকে সারাদেশেই অব্যাহত আছে ইয়াবার চালান। কেননা, আটক করা দুইজন এর আগে বেশ কয়েকবার ইয়াবা নিয়ে ঢাকায় এসেছে।









Leave a reply