বিয়ের সময় অজয় পুরোহিত মশাইকে ঘুষ দিতে চেয়েছিল: কাজল

|

কাজল এবং অজয় ​​দেবগণের প্রেমের গল্প কোনও রূপকথার গল্পের চেয়ে কম সুন্দর নয়। ১৯৯৯ সালে অজয়কে বিয়ে করেছিলেন কাজল, কিন্তু এতদিন পরেও সেই বিয়ের দিনের ঘটনাগুলোকে যেন নিজের চোখের সামনে ভাসতে দেখেন অভিনেত্রী। কথায় কথায় অজয় দেবগণের ঘুষ দেওয়ার প্রস্তাবের কথাও ফাঁস করলেন তিনি। যাতে তাড়াতাড়ি বিয়ের রীতি শেষ করে দেওয়া হয় সেই জন্যে বিয়ের “পুরোহিত মশাইকে তাড়াতাড়ি সব করানোর জন্য মরিয়া চেষ্টা করেছিলো ও” এবং সাতপাকে ঘোরা তাড়াতাড়ি শেষ করার জন্যে অজয় নাকি “পুরোহিতকে ঘুষ দেওয়ারও চেষ্টা করেছিলো”, এমন কথাও বললেন কাজল।

সোশ্যাল মিডিয়া ব্লগের সাম্প্রতিক একটি পোস্টে কাজল তাঁর স্বামী এবং একসময়ের প্রেমিক অজয় ​​দেবগণের সঙ্গে ডেটিংয়ের কিছু আকর্ষণীয় এবং মজার গল্প শেয়ার করে নিয়েছেন । ১৯৯৫ সালে হালচাল ছবির সেটে প্রথমবার অজয়কে দেখেন কাজল আর তারপর তাঁর কী প্রতিক্রিয়া হয়েছিল তাও জানিয়েছেন তিনি।

“২৫ বছর আগে হালচালের সেটে আমাদের একে অপরের সঙ্গে দেখা হয়- আমি শট দেওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়ে জিজ্ঞাসা করেছিলাম, আমার নায়ক কোথায়?” তখন কেউ একজন ইশারা করে তাঁকে দেখান। পরে যদিও ওই ছবির সেটে থাকতে থাকতে আমরা একে অপরের বন্ধু হয়ে উঠি”, হিউম্যানস অফ বম্বে-কে বলেন কাজল।

“আমি সেই সময় অন্য কাউকে ডেটিং করছিলাম এবং ও নিজেও অন্য কারুর সঙ্গে সম্পর্কে ছিল। এমন দিনও গেছে যে আমি আমার সেই সময়ের বয়ফ্রেন্ডের বিরুদ্ধে ওর কাছে অভিযোগও করেছি! পরে আমরা দুজনেই বুঝতে পারলাম যে আমরা একে অপরের সঙ্গে অনেক বেশি স্বচ্ছন্দ বোধ করছি “।

হালচালের পরে কাজল ও অজয় একসঙ্গে ​​গুণ্ডারাজ, ইশক, দিল কেয়া করে, রাজু চাচা এবং প্যার তো হোনা হি থা ছবিতে জুটি বেঁধে কাজ করেন।

ওই পোস্টে কাজল একথাও লেখেন যে, একে অপরের থেকে যেহেতু বেশ খানিকটা দূরে থাকতেন তাই তাঁদের প্রেম বেশিরভাগ সময়ে গাড়ির মধ্যেই চলতো। এইসব কথা ছাড়া নিজের দাম্পত্যের নানা কথাও শেয়ার করেন অভিনেত্রী।

ওই পোস্টে কাজল নিজের প্রথমবার গর্ভবতী হওয়ার কথা এবং গর্ভপাত হয়ে যাওয়ার দুর্ভাগ্যজনক ঘটনাও শেয়ার করেছেন।









Leave a reply