ম্যারাথনে বাড়াতে পারে হৃৎপিণ্ডের ধমনীর আয়ু

|

ম্যারাথনে বাড়াতে পারে হৃৎপিণ্ডের ধমনীর আয়ু। সম্প্রতি এমনই তথ্য জানিয়েছে একটি গবেষণা। লন্ডন ম্যারাথনের জন্য তৈরি হচ্ছিলেন এমন ১৩৮ জন। এসব দৌড়বিদের ওপর বার্টস অ্যান্ড ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন এক জরিপ চালায়।

গবেষণায় দেখা গেছে, কোনো দৌড়বিদ যখন প্রথম ম্যারাথনের জন্য প্রস্তুতি নেন, তখন তার হৃৎপিণ্ডের ধমনী উপকৃত হয়। আর রক্তনালির বয়স চার বছর পর্যন্ত বেড়ে যায়। -খবর বিবিসি বাংলা।

ছয় মাসের প্রশিক্ষণের সময় দেখা গেছে, ম্যারাথনের কারণে হৃৎপিণ্ডের ধমনীগুলোর যেন বয়স কমে গেছে ও ধমনীর স্থিতিস্থাপকতা বেড়েছে।

আর এ পরিবর্তনের ফলে হার্টঅ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমে যায়। আর রক্তচাপ দেখে মনে হচ্ছিল যেন তারা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য ওষুধ খাচ্ছেন।

ব্রিটিশ হার্ট ফাউন্ডেশনের মতে, নিয়মিত অল্প সময়ের জন্য অ্যারোবিক ব্যায়াম করলেও হৃৎপিণ্ডের ওপর এই একই প্রভাব পড়বে।

জার্নাল অব দি আমেরিকান কলেজ অব কার্ডিওলজিতে প্রকাশিত এই গবেষণাটি ব্রিটিশ হার্ট ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে পরিচালিত হয়েছে।

কত জোরে দৌড়াতে হবে?

সাধারণ হিসাবে ২৬.২ মাইল পথ শেষ করার জন্য তাদের গড়ে সাড়ে চার ঘণ্টা থেকে সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার মতো দৌড়াতে হবে।

প্রধান গবেষক ড. শালোর্ট মানিস্ট্রি বলেন, যাদের আগে থেকেই হৃদরোগ আছে, তাদের দৌড়ানোর আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

তবে বেশিরভাগ মানুষের ক্ষেত্রে দেখা যায়, ম্যারাথনে স্বাস্থ্যঝুঁকির চেয়ে ব্যায়াম শুরু করার সুফল অনেক বেশি। ফলে তারা সবদিক থেকে লাভবান হন।

তথ্যসূত্র: বিবিসি বাংলা









Leave a reply