করোনাভাইরাস আতঙ্কে প্লাস্টিকে মুড়ে বিমানযাত্রা!

|

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন দুই হাজার ১১২ জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ৭৫ হাজার ৭২৫ জন।

ভাইরাসটি যখন মহামারী রূপ নিতে যাচ্ছে, তখনও এর প্রতিষেধক আবিষ্কারে তেমন সুখবর দিতে পারছেন না বিজ্ঞানীরা। তাই স্বাভাবিক কারণেই এখন আতঙ্কের নাম করোনাভাইরাস। বিশেষ করে ভ্রমণকারীরা এ বিষয়ে বেশ আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়ে।

এবার করোনাভাইরাসের সেই আতঙ্ক ছড়াল আকাশপথেও। করোনাভাইরাসে সংক্রমিত না হতে নিজেদের প্লাস্টিকে মুড়ে বিমানযাত্রা করেছেন দুই যাত্রী।

একটি ফ্লাইটে ধারণ করা এক ভিডিওতে দেখা গেছে এমন দৃশ্য।

ভিডিওতে দেখা যায়, বিমানে দুই যাত্রীর শরীর আপাদমস্তক ঢাকা। একজনের শরীর প্লাস্টিকের পাতলা আবরণে মোড়ানো। তার পাশে যিনি বসা তিনিও নিজেকে আপাদমস্তক ঢেকে রেখেছেন একটি গোলাপি রঙের প্রতিরোধক স্যুট দিয়ে। তাদের উভয়েরই মুখে রয়েছে মাস্ক ও হাতে গ্লাভস।

ভিডিওটি নিজেদের ওয়েবসাইটে পোস্ট করে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল জানায়, অস্ট্রেলিয়ার একটি ফ্লাইটের দুই যাত্রী এ কাণ্ড ঘটিয়েছেন। বিমানটি অস্ট্রেলিয়ার সিডনি থেকে হ্যামিল্টন দ্বীপে যাচ্ছিল।

আপাদমস্তক ঢেকে ফেলা ওই দুই যাত্রীর এ ভিডিওটি ধারণ করে তাদের সামনে বসা এক নারী যাত্রী।

ভিডিওটি নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে ওই নারী যাত্রী ক্যাপশনে লিখেছেন– ‘বিমানে ঠিক এখন আমার পেছনে বসা। এ জন্য করোনাভাইরাস নিয়ে খুবই আতঙ্কিত।’

উল্লেখ্য, চীনের উহানে উৎপত্তি হওয়া প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঘটেছে সুদূর অস্ট্রেলিয়াতেও। অন্যান্য দেশের মতো অস্ট্রেলিয়াও জরুরি অবস্থা জারি করে ঘোষণা করেছে, সর্বশেষ ১৪ দিন চীনে কাটিয়ে আসা ব্যক্তিরা অস্ট্রেলিয়ায় ঢুকতে পারবে না। তবে তাদের কেউ অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক হলে তাকে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

প্রসঙ্গত অস্ট্রেলিয়া এখন পর্যন্ত ১৫ জন প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের পাঁচজন কুইন্সল্যান্ডের। দেশটির কর্তৃপক্ষ বলছে, এদের সবাই কোনো না কোনোভাবে উহান থেকে এই ভাইরাস বহন করে নিয়ে এসেছেন।









Leave a reply