৭৪ এর দুর্ভিক্ষের প্রেক্ষাপটে রচিত মৃদুলের নতুন উপন্যাস ‘ঘানি’

|

বইমেলায় প্রকাশিত কথাসাহিত্যিক রবিউল করিম মৃদুলের নতুন উপন্যাস ‘ঘানি’। ১৯৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধ ও ৭৪ এর দুর্ভিক্ষের প্রেক্ষাপটে রচিত এ উপন্যাস এরই মধ্যে পাঠকদের পছন্দের বইয়ের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে। এর আগে মৃদুল তার মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক উপন্যাস জলপাই রঙের কোট দিয়ে পাঠকের ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছেন। আলোচিত হয়েছে উপন্যাস ‘এখানে আকাশ নীল’।

এবার এসেছে তার পঞ্চম উপন্যাস ‘ঘানি’। বইটি প্রকাশ করছে শুদ্ধ প্রকাশ। প্রচ্ছদ এঁকেছেন চারু পিন্টু। মূদ্রিত মূল্য ৫৩৫ টাকা। পাওয়া যাচ্ছে শুদ্ধ প্রকাশের ৭০২ নং স্টলে।

ঘানি নিয়ে মৃদুল বলেন- পাঠকদের সাড়ায় আমি অভিভূত। ঘানি খুব ভালোভাবে গ্রহণ করেছেন তারা। শুদ্ধ প্রকাশের বিক্রয়কর্মীরা জানিয়েছেন তাদের স্টল থেকে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হচ্ছে ঘানি। এটা একজন লেখক হিসেবে নিঃসন্দেহে আমার জন্য আনন্দের। আমি চাই মানুষ পড়ুক। প্রচলিত জনপ্রিয় তকমার বাইরে এসে ভালো বইয়ের খোঁজ করে তারা যে পড়ছে সে জন্য আমার পাঠকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।

তিনি জানান, ঘানি এক মর্মন্তুদ জীবন-বেদনার গল্প। নাম ঘানি হলেও এ উপন্যাসের বিস্তার তৈল ভাঙানোর ঘানি বা ঘানি কেন্দ্রিক কোনো ঘটনা সংশ্লিষ্ট নয়। এটি মূলত দুর্বিসহ একজীবনের গল্প। জীবনকে ভেঙেচূড়ে নিংড়ে রস বের করে নেওয়ার গল্প ঘানি। জীবনের যাঁতাকলে পিষ্ট হয়ে কিছু মানুষের জীবনকে টেনে নেওয়ার গল্প। ঘানি লড়াইয়ের; ভাতের লড়াই, তাঁতের লড়াই, পেটের লড়াই, সম্ভ্রমের লড়াই, লড়াই অন্তুঃপুরে জন্ম লওয়া ভালোবাসাটা টিকিয়ে রাখার। রংপুর অঞ্চলের বিস্তীর্ণ জনপদে ১৯৭৪ এর দুর্ভিক্ষের প্রেক্ষাপটে রচিত হয়েছে ঘানি। ৭৪ এর গল্প বলতে গিয়ে অবশ্যম্ভাবীভাবে ধরা দিয়েছে ৭১। মুক্তিযুদ্ধ ও দুর্ভিক্ষ ঘটনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকলেও ঘানি কেবল একই জায়গা আটকে থাকেনি। ঘানিতে মূর্ত হয়েছে জীবনের নানা টানাপোড়েন, প্রেম ও বিষাদ, প্রাপ্তী ও অপ্রাপ্তী, বিশ্বাস ও বৈরিতা। জীবন এখানে ধরা দিয়েছে এক রূঢ় বাস্তবতা নিয়ে।ঘানি নিয়ে আমি দারুণ আশাবাদী। এই বই শুধু বইমেলা নয়, সারা বছরই পাঠকদের আগ্রহ ধরে রাখবে বলে বিশ্বাস করি।

নতুন প্রজন্মের কথাসাহিত্যিকদের মধ্যে মৃদুল দারুণ স্বপ্রতিভ। তার লেখার প্রেক্ষাপট নির্বাচন ও নান্দনিক বয়ান পাঠককে আলাদা স্বাদ দেয়। তিনি জীবনবোধের গল্প বলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। ইতিহাসের প্রতি আলাদা টান থেকেই জলপাই রঙের কোট বা ঘানির মতো ইতিহাস আশ্রিত উপন্যাস রচনার উদ্বুদ্ধ হন। বহুমাত্রিক ভাষাশৈলি ও প্রাঞ্জল বাক্যগাঁথায় তার রচনা এক আলাদা সৌন্দর্য তৈরি করে, যা সহজেই ছুঁয়ে যায় পাঠক হৃদয়।

এর আগে প্রকাশিত হয়েছে রবিউল করিমমৃদুলের আটটি বই। উপন্যাস ‘ফুলন’ (২০১৯), উপন্যাস ‘জলপাই রঙের কোট’ (২০১৮) এবং গল্পগ্রন্থ ‘রকস্টার’ (২০১৭) বই তিনটিবেরিয়েছে দেশ পাবলিকেশন্স থেকে। শুদ্ধ প্রকাশ থেকে বেরিয়েছে গল্পগ্রন্থ ‘নিষিদ্ধ গোলাব’ (২০১৯) এবং কবিতার বই ‘তোমার পায়ের নখে এত চাঁদ কেন’ (২০১৮)। আদর্শ প্রকাশনী থেকে বেরিয়েছে উপন্যাস ‘এখানে আকাশ নীল’ (২০১৬) এবং উপন্যাস ‘শুভ্র কুসুম কৃষ্ণ কুসুম’ (২০১৫)। প্রথম বই গল্পগ্রস্থ ‘হলুদ খাম ও বাদামী ঘাসফড়িং’ ২০১৪ সালে বেরিয়েছে সরল প্রকাশ থেকে।









Leave a reply