তামিমের রিভিউ নষ্টের খেসারত দিলেন শান্ত

|

রিভিউ নষ্ট করলেন তামিম আর তার খেসরত দিতে হলো শান্তকে। এটাই ক্রিকেট। টিম গেম। একজনের ভুলের মাশুল আরেকজনকেও দিতে হয়।

ম্যাচের ১২.৫ ওভারে উইসলি মাধেভেরের বলে এলবিডব্লিউ হন ক্রিজে খাবি খেতে থাকা তামিম ইকবাল। খুব একটা না ভেবেই নিয়ে নিলেন রিভিউ। ইনসাইড এজ চিন্তা করেই কিনা। খালি চোখে আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত নির্ভুল সেটি পরিষ্কারভাবে বুঝা যাচ্ছিল। হলোও তাই। ৪৩ বল খেলে ২৪ রান করা তামিম ফিরে গেলেন। সাথে নষ্ট করলেন বাংলাদেশের ইনিংসের রিভিউ কোটা। যেটিকে ইএসপিএন ক্রিকইনফো বলছে ‘নিতান্তই অপ্রয়োজনীয়’। কেনো তামিম নিশ্চিত আউট জেনেও রিভিউ নষ্ট করলেন সেটি নিয়ে তখন বিস্ময় প্রকাশ করেছিলেন তাদের ধারাভাষ্যকার। মন্তব্য করেছিলেন, ‘তামিম আর ইউ কিডিং মি? ইউ সাকসেসফুলি ওয়েস্টেড অ্যা ক্রুসিয়াল রিভিউ। দ্যাট ওয়াজ নট নেসেসারি। লার্ন টু লেট গো, ডিউড।’

ম্যাচের ২৫.৪-তম ওভারে টিনোটেন্ডা মুতুম্বোডজির বলে এলবিডব্লিউ দেয়া হলো ছন্দে থাকা নাজমুল হোসেন শান্ত। এবার খালি চোখেই দেখা যাচ্ছিল বল অফ স্ট্যাম্প মিস করতে যাচ্ছে। বল ট্র্যাকিংয়ে দেখা যায়, ইম্প্যাক্ট ছিল স্টাম্পের বাইরে। বলটি কোনোভাবেই স্টাম্পে লাগছিল না। রিভিউ নিলেই বেঁচে যেতেন শান্ত। কিন্তু সে সুযোগ যে আর নেই! রিভিউর কোটা নষ্ট করে গেছেন তামিম। ড্রেসিংরুমের দিকে হাঁটা দিলেন শান্ত। টিভি ধারাভাষ্যকারদের মতো আফসোস দেখা গেলো ক্রিকইনফো ধারাভাষ্যকারদের মাঝেও। একে ‘দুঃখজনক’ বলে তামিমের অহেতুক রিভিউ নষ্ট করার প্রসঙ্গ টানলেন তারা। আফসোস করলেন কেনো রিভিউ নষ্ট করলো তামিম।

আউট হওয়ার আগের বলেও দৃষ্টিনন্দন চার হাকিয়েছিলেন শান্ত। এর আগে, মেরেছেন দুটি দারুণ ছয়। ৩৮ বলে ২৯ রান করে দুঃখজনক আউট হয়ে ফিরে গেলেন তিনি।









Leave a reply