পার্লামেন্ট ভেঙ্গে নির্বাচন দিতে হবে: খালেদা

|

বিএনপি নির্বাচনে যাবে, চাইলেও নির্বাচন থেকে বিরত রাখা যাবে না বলে জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। তবে সে নির্বাচন হতে হবে সংসদ ভেঙে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনায় এসব কথা বলেন বিএনপি চেয়ারপারসন।

পূর্বঘোষণা অনুযায়ী দুপুরে ছাত্রদলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে সমবেত হন ছাত্রদলসহ বিএনপির অসংখ্য নেতাকর্মী। কিন্তু ভবনের গেটে তালা থাকায় ভেতরে ঢুকতে পারেননি তারা। পরে নয়াপল্টনের দলীয় কার্যালয়ে জরুরি সংবাদ সম্মেলন করেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। নিরাপত্তার অজুহাতে প্রশাসন এই সভা করতে দেয়নি বলে অভিযোগ করেন তিনি।

এরমধ্যে বিকেলে সভাস্থলে উপস্থিত হন খালেদা জিয়া। তার গাড়িবহর ঘিরে নেতাকর্মীরা মুহুর্মুহু স্লোগান দিতে থাকে। প্রায় এক ঘণ্টা গাড়িতে অপেক্ষা করার পর সন্ধ্যায় খুলে দেয়া হয় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের গেটের তালা। পরে নির্বিঘ্নে সভাস্থলে প্রবেশ করেন নেতাকর্মীরা।

সভায় খালেদা জিয়া বলেন, ‘নির্বাচন হবে। আমরা নির্বাচন করব। তবে পার্লামেন্ট ভেঙ্গে নির্বাচন দিতে হবে। এই পার্লামেন্টে নির্বাচন হবে না।আর হাসিনার অধীনেও নির্বাচন হবে না। আমরা বিএনপি নির্বাচনের দল, আমাদের বাইরে রেখে নির্বাচন হবে না। নির্বাচনটি হতে হবে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে।’









Leave a reply