২৭ মিনিটে মাওয়া

|

মাত্র ২৭ মিনিটেই ঢাকা থেকে মাওয়া যাওয়া যাবে। কথাটি স্বপ্নের মতো হলেও বৃহস্পতিবার থেকে তা বাস্তবে রূপ নেবে দেশের প্রথম এক্সপ্রেসওয়ের মাধ্যমে। ফলে যুগান্তকারী পরিবর্তন আসবে দেশের সড়কপথে- এমনই মনে করছেন স্থানীয় মানুষ এবং পরিবহন সংশ্লিষ্টরা।

বৃহস্পতিবার সকালে ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে ৫৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ঢাকা-মাওয়া অংশের এই এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের সুবিধার্থে ২০১৬ সালে শুরু হয় প্রথম এক্সপ্রেসওয়ের নির্মাণ কাজ। স্বপ্নের পদ্মা সেতু পাড়ি দিয়ে দক্ষিণের মানুষ সরাসরি যাতে রাজধানীতে প্রবেশ করতে পারে তার জন্যই এই পরিকল্পনা।

মাত্র তিন বছরের মাথায় সেই স্বপ্ন এখন বাস্তব। জুরাইন, পোস্তগোলার জ্যামে কিছুদিন আগেও যেখানে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হতো, এখন সেখানে শুধুই এগিয়ে চলা। দেশের প্রথম এক্সপ্রেসওয়েতে থাকছে দৃষ্টিনন্দন চার লেনের সড়ক। যে সড়ক ধরে দ্রুত গতিতে চলতে পারছে যানবাহন। স্থানীয়দের চলাচলের জন্য মূল সড়কের পাশেই করা হয়েছে দুই লেনের সার্ভিস সড়ক। (ফলে) কোথাও নেই থেমে থাকার ভোগান্তি।

দেশের প্রথম এই এক্সপ্রেসওয়ে যুক্ত হবে এশিয়ান হাইওয়ের সাথে। থাকছে ৪টি বড়ো সেতু, ছোট সেতু ২৫টি আর ৫টি ফ্লাইওভার। এ পথে রেল ওভারপাস আছে ১৯টি। যাত্রা পথে দীর্ঘদিনের ভোগান্তি শেষ হওয়ায় খুশি পরিবহন শ্রমিকসহ সাধারণ মানুষ।

এমন উন্নয়নে পুরো দক্ষিণবঙ্গের অর্থনীতি চাঙ্গা হবে বলেও আসা স্থানীয়দের।
নতুন এই সড়কে ঢাকা থেকে মাওয়া পৌঁছাতে সময় লাগবে মাত্র ২৭ মিনিট। গাড়ির গতিবেগ থাকতে পারবে সর্বোচ্চ ১৫০ কিলোমিটার।









Leave a reply