আরো কয়েকদিন চলবে শৈত্যপ্রবাহ

|

পৌষের কনকনে শীতে কাঁপছে সারা দেশ। সাথে আবার মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। সব মিলিয়ে স্বাভাবিক জীবনের নিত্য প্রবাহে পড়েছে ভাটা। শৈত্যপ্রবাহ ও ঘন কুয়াশার কারণে দিনের বেশিরভাগই সময় সূর্য আড়মোড়া ভাঙতে পারছে না। তাই কয়েকদিন ধরে পারদ ৯ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ঘরে ওঠানামা করছে। প্রচণ্ড শীতে বিপর্যস্ত জনজীবন।

এ মৌসুমে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে চুয়াডাঙ্গায় ৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আগমী একদিনের মধ্যে তাপমাত্রা আরও কমে যাওয়ার পূর্বাভাস দিচ্ছে আবহাওয়া অফিস।

রাজধানী ঢাকায় বৃহস্পতিবার রাতে তাপমাত্রা নেমেছিল ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। আবহাওয়া দফতর বলছে আগামী বুধবার পর্যন্ত দিন ও রাতের তাপমাত্রার মধ্যে তেমন কোনো পার্থক্য থাকবে না। তাপমাত্র নামতে পারে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। মধ্য রাত থেকে দুপুর পর্যন্ত থাকবে ঘন কুয়াশায় দাপট।

হিমেল হাওয়ায় কাবু উত্তরাঞ্চলের সবখানেই এখন উষ্ণতার খোঁজ। প্রচণ্ড শীতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে রংপুর, পঞ্চগড়, দিনাজপুর, চুয়াডাঙ্গা, কুড়িগ্রামসহ উত্তরাঞ্চলের জনজীবন। সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে হতদরিদ্র নিম্ন আয়ের মানুষ। পঞ্চগড়ে বৃহস্পতিবার রাতের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এ মৌসুমে তাপমাত্র আরও নামবে বলে পূর্বাভাস দিচ্ছে উত্তরাঞ্চলের আবহাওয়া দফতরের ভারপ্রাপ্ত  কর্মকর্তা তোফাজ্জল হোসেন। আগামী তিন দিন তাপমাত্র ৬ ডিগ্রিতে নামার আভাস দিচ্ছে এই আবহাওয়া বিশেষজ্ঞ।









Leave a reply