করোনার চিকিৎসা দিতে অস্থায়ী হাসপাতাল তৈরি করছে নিউইয়র্ক

|

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় দিশেহারা গোটা বিশ্ব। ইউরোপ থেকে আমেরিকা, এশিয়া থেকে অস্ট্রেলিয়া, প্রাণঘাতী কোভিড নাইনটিনের ছোঁবল থেকে বাদ যায়নি কোন দেশ। সংক্রমন আর মৃত্যু ঠেকাতে বিশ্বজুড়ে চিকিৎসা খাতে চলছে, নজিরবিহীন জরুরি অবস্থা। একসাথে সব দেশেই বাড়ানো হচ্ছে সেবা দেয়ার সক্ষমতা।

অত্যাধুনিক ব্যবস্থা থাকার পরও, করোনা রোগী সামাল দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে নিউইয়র্কের মতো শহরকে। বাধ্য হয়ে, অস্থায়ী হাসপাতালের দিকে ঝুকছে তারাও।

নিউইয়র্কের গভর্ণর অ্যান্ডরু ক্যুমো বলেন, শোরুম খালি করে এখানে রোগীদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এখানে কমপক্ষে ১ হাজার রোগী থাকতে পারবেন। আগামী এক সপ্তাহ থেকে ১০ দিনের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ হবে আরও একটি হাসপাতালের।

গুরুতর করোনা রোগীদের মূল চিকিৎসা আইসিইউ এবং ভেন্টিলেশনের ব্যবস্থা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুশিয়ারি, প্রস্তুতির ঘাটতি থাকলে পড়তে হবে চরম সংকটে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মাইকেল রায়ান বলেন, ভাইরাস কোন সীমান্ত চেনে না। আপনি কোন জাতীর, কোন বর্ণের অথবা ব্যাংকে আপনার কত টাকা আছে তা কিন্তু দেখবে না। তাই সবার আগে প্রয়োজন সতর্কতা আর প্রস্তুতি।

রোগীর চাপ সামাল দিতে, বিলাসবহুল হোটেল, ক্যাফে, রেস্তোরা খালি করে বিশেষায়িত হাসপাতাল নির্মাণ করেছে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ।









Leave a reply