নাটোরে নির্যাতিত কৃষকের পাশে দাঁড়ালো ছাত্রলীগ

|

স্টাফ রিপোর্টার:

নাটোরের লালপুরে ৩৩৩ নম্বরে ফোন করে ত্রাণ চাওয়ায় নির্যাতিত কৃষক শহিদুল ইসলামের পাশে দাঁড়িয়েছে ছাত্রলীগ। শুক্রবার বিকেলে জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রাকিবুল হাসান জেমসসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপজেলার আঙ্গারীপাড়ায় গিয়ে কৃষকের হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দেন। এসময় ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ তার পাশে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

নাটোর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাকিবুল হাসান জেমস জানান, নির্যাতিত কৃষক শহিদুল ইসলামের প্রতি সহমর্মিতা জানাতে তার বাড়িতে যাই। এসময় নিজ উদ্যোগে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী উপহার হিসাবে তার হাতে তুলে দেই। তিনি একজন ভাল মনের মানুষ। নিজের ও এলাকাবাসীর কথা চিন্তা করে তিনি সরকারি সহায়তার নাম্বার ৩৩৩ তে ফোন করেছিলেন। পরে তিনি অর্জুনপুর-বারমহাটি চেয়ারম্যান কতৃক নির্যাতনের স্বীকার হন। দোষী যেই হোক তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করছি।

এসময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, লালপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইউসুফ আলীসহ ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য গত ১০ এপ্রিল সরকারি সহায়তার নাম্বারে ফোন করে ত্রাণ চান কৃষক শহিদুল ইসলাম। বিষয়টি জেনে এলাকার সম্মান গেছে এমন অজুহাতে গত ১২ এপ্রিল কৃষককে ধরে নিয়ে অর্জুনপুর-বারমহাটি চেয়ারম্যান ইউপি কার্যালয়ে পেটান চেয়ারম্যান আব্দুস সাত্তার। গত মঙ্গলবার বিকেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘটনাটি ভাইরাল হলে দেশজুড়ে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়। তবে কৃষক শহিদুলের পরিবর্তে অন্য একটি রক্তাক্ত ছবি ভাইরাল হয়। এঘটনায় মামলা হলে শুক্রবার সকালে চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করে পুলিশ।









Leave a reply