জয়ী হওয়ার সাধনায় আমরা ভালবাসার গুরুত্ব ভুলে যাই: ভক্তদের উদ্দেশে ইরফানের সেই টুইট

|

জয়ী হওয়ার সাধনায় আমরা ভালবাসার গুরুত্ব ভুলে যাই: ভক্তদের উদ্দেশে ইরফানের সেই টুইট

চলে গেলেন জনপ্রিয় অভিনেতা ইরফান খান

প্রাণঘাতী রোগের বিরুদ্ধে জীবন যুদ্ধ চালানোর পাশাপাশি ভক্তদের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশে ভুল করেননি প্রয়াত বলিউড অভিনেতা ইরফান খান। বেশ কিছুদিন আগে অনুরাগীদের উদ্দেশে টুইটারে ইরফান লেখেন, ‘জীবনে জয়ী হওয়ার সাধনায় মাঝে মধ্যে ভালবাসার গুরুত্ব ভুলে যাই আমরা। তবে দুর্বল সময় আমাদের তা মনে করিয়ে দেয়। জীবনের পরবর্তী ধাপে পা রাখার আগে তাই খানিক ক্ষণ থমকে দাঁড়াতে চাই আমি। অফুরন্ত ভালবাসা দেওয়ার জন্য এবং পাশা থাকার জন্য আপনাদের সকলকে কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই। আপনাদের এই ভালবাসাই আমার যন্ত্রণায় প্রলেপ দিয়েছে। তাই ফের আপনাদের কাছেই ফিরছি। অন্তর থেকে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি সকলকে।’

ফিরে এসেছিলেন ইরফান। তবে তার শেষ মুক্তি পাওয়া ছবি ‘আংরেজি মিডিয়াম’ লকডাউনের জেরে থমকে যায়। এর মথ্যে গত ২৫ এপ্রিল চলে যান ইরফানের মা। ৪দিন পর দুই ছেলে আর আর স্ত্রীকে রেখে ইরফানও পাড়ি দিলেন পরপারে।

মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করতে গিয়ে কখনও মুহূর্তের জন্য দুর্বল হননি তিনি। সবশেষ অভিনীত সিনেমা নিয়ে ইরফানের সোশ্যাল মিডিয়ায় লেখেন, ‘নমস্কার ভাই-বোনেরা। আমি ইরফান। আপনাদের সাথে একপ্রকার রয়েছি আবার নেইও! ‘আংরেজি মিডিয়াম’ ছবিটি আমার জন্য ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্বাস করুন, যেভাবে ভালবেসে ছবিটা তৈরি করেছি, ঠিক সেভাবেই এর প্রচার করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু আমার শরীরে কিছু অযাচিত অতিথি এসে বাসা বেঁধেছে, তাদের সঙ্গেই আপাতত কথাবার্তা চলছে। দেখি কী হয়! যাই হোক না কেন, আপনাদের জানাব।’

এরপরই ভিডিওতে ইরফান খানকে মজা করে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘প্রবাদ রয়েছে যে, ‘জীবন যখন আপনার হাতে লেবু ধরিয়ে দেবে ওটা দিয়ে লেমোনেড (শরবত) বানিয়ে খাওয়া উচিত।’ এমন বলা কিন্তু খুবই সহজ, কিন্তু বাস্তবে যখন সত্যি আপনার হাতে জীবন একটা লেবু ধরিয়ে দেবে ওটা দিয়ে ‘শিকাঞ্জি’ বানানোটা বড়ই কঠিন। বাস্তবটা খুবই মুশকিল। যদিও পজিটিভ ভাবনাচিন্তা নিয়ে বেঁচে থাকাই জীবনের লক্ষ্য হওয়া উচিত। আশা করছি, এই ছবি থেকে আপনারা অনেক কিছু শিখতে পারবেন। আপনাদের যেমন হাসাবে, তেমন কাঁদাবেও। ট্রেলারের আনন্দ নিন এবং ছবিটা দেখুন। আর হ্যাঁ আমার জন্য অপেক্ষা করবেন।’

প্রসঙ্গত ২০১৮ সালে নিউরোঅ্যান্ডোক্রাইন টিউমার ধরা পড়ে ইরফানের। এরপর এক বছর বিদেশে থেকে চিকিৎসা করিয়েছিলেন। ফিরে এসে অভিনয় করেন ‘আংরেজি মিডিয়াম’ সিনেমায়। শনিবার (২৫ এপ্রিল) সকালে ভারতের জয়পুরে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ইরফান খানের মা সাইদা বেগম। মায়ের মৃত্যুর ৪ দিন পর বুধবার দুপুরে মুম্বাইয়ের এক হাসপাতালে মারাই গেছেন এই শক্তিমান অভিনেতা।









Leave a reply