হুমকি ও মারধর মামলা‌য় রাঙ্গাবালী ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গ্রেফতার

|

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

হুমকি ও মারধর ঘটনার মামলায় পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশিকুর রহমান উজ্জ্বলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সকালে উপজেলা সদরের বাহেরচর বাজার থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাৎক্ষণিক তাকে গলাচিপা জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরণ করা হয়।

এরআগে গত ২৫ এপ্রিল উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নের বউবাজার সংলগ্ন হিন্দুগ্রামের ধীরেন মণ্ডল (৩৫), বিশ্বজিৎ মজুমদার (৩৪) ও সুদেব মণ্ডল (২৩) নামের তিন যুবকের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বুধবার রাতে (২৯ এপ্রিল) উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশিকুর রহমান উজ্জ্বলসহ পাঁচজনকে আসামি করে রাঙ্গাবালী থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। হামলার শিকার সুদেবের বাবা শ্রী সুরেণ মণ্ডল বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

মামলায় বাদীর অভিযোগ, উপজেলার সোনারচরে মাছ শিকার করে বাদী জীবিকা নির্বাহ করে। কিন্তু সোনারচরে মাছ শিকার করা নিয়ে বাদীর সঙ্গে আসামি উজ্জ¦লের (ছাত্রলীগ নেতা) বিরোধ। তাকে মাছ ধরতে সোনারচরে যেতে নিষেধ করে হুমকি দেয় উজ্জ্বল। ঘটনার দিন (গত ২৫ এপ্রিল) আসামি উজ্জ্বলের নেতৃত্বে অপর আসামি জয় চন্দ্র হাওলাদার, নিখিল চন্দ্র হাওলাদার, বরকত সিকদার ও রতন চন্দ্র মিস্ত্রীসহ অজ্ঞাতনামা ২-৩ জন বাদীর বাড়িতে গিয়ে তাকে না পেয়ে ছেলে সুদেব ও মেয়ে জামাই ধীরেন মণ্ডলকে বুড়াগৌরাঙ্গ নদীর তীরে নিয়ে বেধড়ক মারধর করে। ডাকচিৎকার শুনে বিশ্বজিৎ ছুঁটে গেলে আসামিরা তাকেও মারধর করে।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান শিবলী বলেন, ‘ছাত্রলীগকে যেন শুধু শুধু বিতর্কিত করা না হয়। আমি ছাত্রলীগের কর্মী হিসেবে চাই, ওই ঘটনায় জড়িত প্রকৃত অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হোক।’

এ ব্যাপারে রাঙ্গাবালী থানার ওসি আলী আহম্মেদ বলেন, ‘মারধর ও হুমকির ঘটনায় দায়ের করা মামলা উজ্জ্বলকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।’









Leave a reply