‘মিডিয়া কাভারেজের জন্য মন্ত্রীদেরকে প্রধান অতিথি করা হয়’

|

নির্দিষ্ট সময়ে শুরু হতে দেরি হওয়ায় রাগ করে চলে যাওয়ার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের অনুষ্ঠানে আবারও এসেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সকাল সাড়ে ১১টার পর তিনি আবারও অনুষ্ঠানস্থলে এসে হাজির হন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, মিডিয়া কাভারেজের জন্য এখন মন্ত্রীদেরকে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি করা হয়। আলোচনার বিষয়বস্তু নিয়ে ওই মন্ত্রীর জ্ঞান থাকুক আর না থাকুক তাকে হাজির থাকতে হয়।

এ ধরনের মানসিকতা থেকে আয়োজকদের বেরিয়ে আসা উচিত বলে মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের। তিনি আরও বলেন, আজকের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হয়ে আমি আসতে চাইনি। মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির জোরাজুরিতে আসতে হয়েছে।

স্বামী বিবেকানন্দের ১৫৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আজ শুক্রবার সকাল ১০টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি যথাযথ সময়ে উপস্থিত হন অনুষ্ঠানস্থলে। কিন্তু সেখানে দর্শক শ্রোতা বলতে তেমন কেউ ছিল না।নির্দিষ্ট সময়ে অনুষ্ঠানে লোকজন উপস্থিত না হওয়ায় আয়োজকরাও প্রোগ্রাম শুরু করতে দেরি করছিলেন। এতে রেগে গিয়ে অনুষ্ঠানস্থল থেকে বের হয়ে যান ওবায়দুল কাদের। এসময় জগন্নাথের হলের প্রোভোস্ট এবং বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক মাকসুদ কামাল অনুরোধ করেও তাকে রাখতে পারেননি।
সেখান থেকে মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করতে রাজধানীর কমলাপুর এলাকায় চলে যান। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অনুরোধে শীতবস্ত্র বিতরণ শেষ আবার অনুষ্ঠানে যোগ দেন।টিবিজেড/









Leave a reply