দেশে করোনা রোগীদের ওপর প্লাজমা থেরাপি প্রয়োগে ইতিবাচক ফল

|

দেশে করোনা রোগীদের ওপর প্লাজমা থেরাপি প্রয়োগে ইতিবাচক ফল মিলেছে। এমনটাই জানিয়েছেন রাজারবাগ পুলিশ লাইনস হাসপাতালের চিকিৎসকরা। সেখানে চিকিৎসাধীন পুলিশ সদস্যদের ওপর পরীক্ষামূলকভাবে এই থেরাপি ব্যবহার করা হয়েছে।

এতে দেখা গেছে, প্লাজমা প্রয়োগের ফলে আক্রান্তদের অক্সিজেন নেবার ক্ষমতা ৩০ থেকে ৬০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(প্রশাসন) সাইফুল ইসলাম সানতু জানান, তারা গত তিন-চার দিন ধরে করোনায় সুস্থ রোগীর রক্ত থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করা শুরু করেছেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে আজ তিন-চারজন গুরুতর রোগীকে প্লাজমা দেয়া হয়। দেয়ার পর তাদের উন্নতি দেখা যাচ্ছে। তিনি বলেন, যাদের বেশি শ্বাসকষ্ট ছিল, তাদের কমেছে। যাদের সবসময় কৃত্রিম অক্সিজেন লাগতো, তারা এখন স্বাভাবিকভাবে শ্বাস নিতে পারছেন।

তবে সাময়িক এই উন্নতি যখন পুরোপুরি রোগীকে সুস্থ করে তুলবে তখনই এটা সফল বলা যাবে বলেও জানান তিনি।

রাজারবাগ পুলিশ হাসাপাতালে কোভিড-১৯ রোগী ঘোষণার পর শুরু থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন সানতু।
তিনি জানান, পুলিশ হাসপাতালে প্লাজমা নিয়ে কাজ করা হচ্ছে এটা জানার পর বেশ কয়েকজন ভিড় করেছেন প্লাজমা সংগ্রহে। কিন্তু এটা নিয়ে আরো কাজ বাকি। প্রাথমিক পর্যায়ে নির্দিষ্ট রোগীদের উপর প্লাজমা দিয়ে সুস্থ করতে পর্যবেক্ষণ চালানো হচ্ছে।

এর আগে, গত শনিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজে আনুষ্ঠানিকভাবে প্লাজমা সংগ্রহ শুরু হয়। এসময়, প্লাজমা থেরাপি সাব-কমিটির প্রধান প্রফেসর এম এ খান বলেন, কার্যকারিতা প্রমাণিত হলে উন্নত দেশগুলোর মতো দেশেও করোনা চিকিৎসায় নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে। আগামী জুনে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের ফলাফল পাওয়ার আশা করেছিলেন তিনি। তারও আগে, করোনাজয়ী একজন চিকিৎসক ও একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারের প্লাজমা সংগ্রহ করে শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউট।









Leave a reply