৮ মে ১৩ হাজার, ২০ মে ২৬ হাজার, দেশে ১২ দিনে দ্বিগুণ করোনা রোগী

|

দেশে সর্বোচ্চ নমুনা পরীক্ষার দিনে নতুন রোগী শনাক্তে রেকর্ড হয় গতকাল বুধবার। ১০ হাজার ২০৭টি নমুনা পরীক্ষা করে সর্বোচ্চ ১ হাজার ৬১৭ জনের মধ্যে নতুন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। এ নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৬ হাজার ৭৩৮ জন। এদিকে এশিয়া মহাদেশের ৪৯টি করোনা সংক্রমিত দেশের মধ্যে বাংলাদেশ জায়গা করে নিয়েছে ৯ নম্বরে। বৈশ্বিক তালিকায়ও শীর্ষ ৩০-এর ঘরেও চলে এসেছে বাংলাদেশ।

পরিসংখ্যানে দেখা যায়, বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা ১০০ ছাড়াতে সময় লেগেছিল এক মাস। মার্চের ৮ তারিখ প্রথম রোগী ধরা পড়ার ঠিক এক মাস পর (৮ এপ্রিল) দেশে নভেল করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) রোগীর সংখ্যা ছিল ২১৮ জন। পরের এক মাসে (৮ মে) তা গিয়ে দাঁড়ায় ১৩ হাজার ১৩৪ জনে। গতকাল পর্যন্ত দেশে করোনা রোগী ছিল ২৬ হাজার ৭৩৮ জন। সংক্রমিত রোগীর এই সংখ্যাটি দ্বিগুণ হতে লেগেছে মাত্র ১২ দিন।

এদিকে দেশে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ৩৮৬ জনে। সারা দেশে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের মধ্যে ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২১৪ জন। সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত ৫ হাজার ২০৭ জন সুস্থ হয়ে উঠলেন।









Leave a reply