কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চাইলেন নোবেল

|

গানের অ্যালবামের প্রচারণা কতোভাবেই তো হয়। কিন্তু উদীয়মান শিল্পী মাঈনুল আহসান নোবেলের ধাঁচটি ছিল নেতিবাচক। একের পর এক আপত্তিকর স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি। দেশের লিজেন্ড শিল্পী থেকে শুরু করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি- কাউকে যেন কটাক্ষ করতে ছাড়লেন না। স্বভাবতই তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন নোবেল। র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ানের (র‍্যাব) এর কার্যালয়ে ডাকা হয়েছিল তাকে। অবশেষে নিজের ভুল স্বীকার করে দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাইলেন এই গায়ক।

রোববার ফেসবুক লাইভে এসে তিনি ক্ষমা চেয়েছেন তিনি। বলেন, আমি মনে হয় একটু বেশি বেশি করে ফেলেছি। আমার ওপর অনেকে ক্ষিপ্ত হয়ে আছেন। আমি বারবার বলেছি এটা আমার গানের প্রমোশনের জন্য করেছি। আশা করি সবাই ফ্যামেলির সাথে সুন্দর ঈদ কাটাবেন। আবারও বলছি, সবাই আমাকে ক্ষমা করবেন, প্লিজ।

সম্প্রতি নোবেল ফেসবুকে এক পোস্টে লিখেছিলেন, দু-বছর আগে জন্ম নিয়েছি আপনাদের ভালবাসা নিয়ে। দু-বছরে ফ্লপ হিট গানের সংখ্যা দুই। তোমার মনের ভেতর – অনুপম রায় (National Award winner) আগুনপাখি – শান্তনু মৈত্র (National Award winner)।

তারপর তিনি লেখেন, ‘তোমাদের লেজেন্ড গত দশ বছর ধরে কয়টা ফ্লপ অথবা হিট রিলিজ করেছে কমেন্টস্ সেকশানে জানাও। থুক্কু বাংলাদেশে তো গত ১০ বছরে ভালো করে কেউ মিউজিকই করেনি। দাঁড়াও তোমার লেজেন্ডদের না হয় আমিই শিখাবো, কিভাবে ২০২০ সালে মিউজিক করতে হয়।’

এমন ফেসবুক পোস্ট দেয়ার পরেই তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন নোবেল। প্রথমে বিষয়টি পাত্তা না দিলেও শেষ পর্যন্ত ক্ষমা চাইলেন ‘সারেগামাপা’খ্যাত এই গায়ক।

রোববার বিকেলে নোবেল তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ তথ্য জানিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেন। তিনি জানান এসব ছিলো তার ‘তামাশা’ নামের একটি গানের প্রচারণার জন্য। নোবেল লিখেছেন ‘আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে র‌্যাব-২ এর মনির জামান ভাইয়ের কাছে লিখিত বক্তব্য পেশ করেছি। সকলকে ঈদের অগ্রিম শুভেচ্ছা এবং ‘তামাশা’ গানটি শোনার আমন্ত্রণ।

পরে লাইভে এসে ক্ষমা চাইলেন তিনি।

আরও দেখুন: লেজেন্ডদের শিখাবো, কীভাবে ২০২০ সালে মিউজিক করতে হয়: নোবেলের স্ট্যাটাস ঘিরে বিতর্ক

লাইভে এসে নোবেল বললেন, শুনলাম পেইজ নাকি হ্যাক হইছে? কই পেইজ তো হ্যাক হয়নি!

এবার নোবেল বললেন, আমার ‘স্ক্যন্ডাল’ হবে নাতো চায়ের দোকানদার নরেন্দ্র মোদির হবে?









Leave a reply