জরুরি বিভাগসহ ৬ অ্যাম্বুলেন্স ভাঙচুর করলো চিকিৎসাধীন পুলিশ সদস্য

|

গাইবান্ধা প্রতিনিধি
গাইবান্ধায় চিকিৎসাধীন এক পিবিআই পুলিশ কনস্টেবল তাণ্ডব চালিয়ে হাসপাতালের জরুরি বিভাগ ও পার্কিং করা ছয়টি অ্যাম্বুলেন্স ভাঙচুর করেছে। এসময় হাসপাতালের বিছানা, অক্সিজেন সিলিন্ডার ও জানালার গ্লাস ভাঙচুরসহ কর্তব্যরত চিকিৎসক-নার্সদের সাথেও দুর্ব্যবহার করে ওই পুলিশ কনস্টেবল।

মঙ্গলবার মধ্যরাতে গাইবান্ধা জেলা সদর হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে। পরে বুধবার (২৭ মে) সকালে পুলিশ কনস্টবেল সাইফুল ইসলামকে আটক করে সদর থানা পুলিশ। আটক সাইফুলের বাড়ি দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাট উপজেলায়। সাইফুল ইসলাম ঢাকায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) কনস্টেবল হিসেবে কর্মরত।

পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, মঙ্গলবার রাতে মানসিক অসুস্থতার লক্ষণ নিয়ে সাইফুলকে হাসপাতালে ভর্তি করে তার শশুর বাড়ির লোকজন। গভীর রাতে হঠাৎ করে সাইফুল কর্তব্যরত নার্স ও চিকিৎসকদের সাথে দুর্ব্যবহার করে। পরে সাইফুল হাসপাতালে ব্যাপক তাণ্ডব চালিয়ে হাসপাতালের বিছানা, অক্সিজেন সিলিন্ডার, জানালার গ্লাস ও জরুরি বিভাগ ভাঙচুর করে। এছাড়া হাসপাতালের সামনে থাকা ছয়টি অ্যাম্বুলেন্সও ভাঙচুর করে সাইফুল।

এ বিষয়ে সদর হাসপাতাল আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. হারুন অর রশিদ জানান, চিকিৎসাধীন সাইফুলের তাণ্ডব ও ভাঙচুরের ঘটনায় সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়। পরে বুধবার সকালে সাইফুলকে আটক করে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে বোনারপাড়া থেকে সাইফুলকে হাত-পা বেঁধে হাসপাতালে নিয়ে আসেন শ্বশুর বাড়ির লোকজন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খাঁন মো. শাহারিয়া বলেন, অভিযুক্ত সাইফুলকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে। সাইফুল মানসিক রোগে অসুস্থ থাকায় ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। এছাড়া ঘটনার বিষয়টি অভিযুক্ত সাইফুলের পরিবারসহ পিবিআই উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে।









Leave a reply