যেখানে করোনার নমুনা পরীক্ষা করবেন

|

যতদিন গড়াচ্ছে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বাড়ছে করোনার নমুনা পরীক্ষার চাহিদাও। এখন ঢাকা ও ঢাকার বাইরে ৫০টি কেন্দ্রে করোনা শনাক্তকরণের পরীক্ষা হচ্ছে। যদিও তা চাহিদার তুলনায় অপ্রতুল।

ঢাকায় সরকারি মেডিকেল:
অনলাইনে ফরম পূরণ করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা করানো যাবে।
স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও সরাসরি নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে।

ব্র্যাক:
উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাকের নমুনা সংগ্রহের বুথে সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত নমুনা দেওয়া যাবে। রাজধানীতে ব্র্যাকের বুথ রয়েছে-

মিরপুর ১৩ নম্বরের সরকারি ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।
মিরপুর ১৩ নম্বরের ৪ নম্বর ওয়ার্ড কমিউনিটি সেন্টার।
বাউনিয়া এলাকার আনোয়ারা মুসলিম গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ।
উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজ।
উত্তরা ৬ নম্বর সেক্টরের উত্তরা হাইস্কুল।
মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ সংলগ্ন ১০ নম্বর কমিউনিটি সেন্টার।
উত্তরখান জেনারেল হাসপাতাল।
দক্ষিণখানের জামতলার নবজাগরণ ক্লাব।
মোহাম্মদপুরের সূচনা কমিউনিটি সেন্টার।
মধুবাগের আসাদুজ্জামান খান কামাল কমিউনিটি সেন্টার।
নয়াপল্টনের পল্টন কমিউনিটি সেন্টার।
জাতীয় প্রেসক্লাব।
যাত্রাবাড়ী শহীদ ফারুক সড়কের ৫০ নম্বর ওয়ার্ড কমিউনিটি সেন্টার।
দয়াগঞ্জ বস্তির সুইপার কলোনি।
বাসাবো কমিউনিটি সেন্টার।
ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি।
আমলিগোলা পার্ক ও কমিউনিটি সেন্টার।
কামরাঙ্গীরচরের মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম চৌধুরী কমিউনিটি সেন্টার।
টঙ্গীর শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতাল।
সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।
নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন।
নয়াবাজার মোড়ের হাজী জুম্মন কমিউনিটি সেন্টার।

জেকেজি:

জেকেজি হেলথ কেয়ারের বুথে বেলা ১১টা থেকে ২টা পর্যন্ত নমুনা দেওয়া যাবে। বুথগুলো হচ্ছে-
মহাখালীর কড়াইলের পল্লীবন্ধু এরশাদ বিদ্যালয়।
বাসাবোর সবুজবাগ সরকারি মহাবিদ্যালয়।
খিলগাঁও স্কুল অ্যান্ড কলেজ।
নারায়ণগঞ্জ স্কুল অ্যান্ড কলেজ।
সিদ্ধিরগঞ্জের এম ডব্লিউ উচ্চবিদ্যালয়।

ঢাকায় বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় নমুনা পরীক্ষা করা যাবে
বেসরকারি হাসপাতালে নমুনা পরীক্ষা করালে সাড়ে ৩ হাজার টাকা। আর হাসপাতালের প্রতিনিধি বাসায় গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করলে সাড়ে ৪ হাজার টাকা খরচ পড়বে।
এভারকেয়ার হাসপাতাল।
স্কয়ার হাসপাতাল।
প্রাভা হেলথ বাংলাদেশ লিমিটেড।
ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।
এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।
ইউনাইটেড হাসপাতাল।
আনোয়ার খান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।
বায়োমেড ডায়াগনস্টিকস।
ল্যাবএইড হাসপাতাল।

চট্টগ্রাম বিভাগ:

চট্টগ্রামের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি)।
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ।
কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ।
কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ।
নোয়াখালীর আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজ।

অন্যান্য:
ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ।
জামালপুরের শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ।
রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।
বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ।
রংপুর মেডিকেল কলেজ।
দিনাজপুরের এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ।
সিরাজগঞ্জের এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ।
সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।
খুলনা মেডিকেল কলেজ।
কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ।
বরিশালের শের–ই–বাংলা মেডিকেল কলেজ।
ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ।
নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতাল।
বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ।
রংপুর মেডিকেল কলেজ।
দিনাজপুরের এম আবদুর রহিম মেডিকেল কলেজ।
সিরাজগঞ্জের এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ।
সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।
খুলনা মেডিকেল কলেজ।
কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ।
বরিশালের শের–ই–বাংলা মেডিকেল কলেজ।
ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ।
নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতাল।।

এ ছাড়া জেলা সদর হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে সন্দেহভাজন করোনা রোগীদের নমুনা সংগ্রহের ব্যবস্থা রয়েছে।









Leave a reply