বাবাকে দাফন করে এসে পরীক্ষায় অংশ নেয়া আমিরুল জিপিএ-৫ পেয়েছে

|

বাবাকে দাফন করে এসে পরীক্ষায় অংশ নেয়া আমিরুল জিপিএ ৫ পেয়েছে

শিক্ষার্থী আমিরুল ইসলাম

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে পিতার লাশ দাফন করে এসে সলিমগঞ্জ এ আর এম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা শিক্ষার্থী আমিরুল ইসলাম গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে।

জানা যায়, জেলার নবীনগর উপজেলার বড়িকান্দি ইউনিয়নের মুক্তারামপুর গ্রামের খোরশেদ আলম গত ২ ফেব্রুয়ারি উপজেলার সলিমগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে তার ছেলের এসএসসির পরীক্ষার সিট দেখতে গিয়ে স্কুলের তোরণ ভেঙ্গে মাথায় আঘাত লেগে ঘটনা স্থলেই মারা যায়। পরদিন সকালে ছেলে আমিরুল তার পিতা খোরশেদ মিয়ার লাশ দাফন করে এসে পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেন।

পিতার মৃত্যুর শোক নিয়ে পরীক্ষা দিয়েও বিজ্ঞান বিভাগ থেকে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়ে সবার নজর কেড়েছে আমিরুল।

সলিমগঞ্জ এআরএম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আহাম্মদ আলী বলেন, আমার ২৫ বছরের শিক্ষকতা জীবনে এতো আনন্দ পাইনি। আমিরুলের রেজাল্ট দেখে যতটুকু আনন্দ পেয়েছি। আমার নিজের সন্তানও এই স্কুল থেকে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে। তবে আমি সবচেয়ে আনন্দিত আমিরুলের রেজাল্টে।

এই ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোকাররম হোসেন বলেন, আমিরুলের এই রেজাল্টে আমাদের শিক্ষক সমাজ খুবই আনন্দিত। তার সুন্দর ও কল্যাণময় জীবনের কামনা করছি। আগামী দিনে তার লেখাপড়ার বিষয়ে আমরা যে কোন বিষয়ে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত আছি।









Leave a reply