মোহনগঞ্জে গৃহবধুকে গলাটিপে হত্যা: স্বামীসহ আটক ৪

|

নিহত খুকু মণি

স্টাফ রির্পোটার, নেত্রকোনা:

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে খুকু মণি (২০) নামে এক গৃহবধুকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে।

ঘটনাটি ঘটেছে জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলার তেথুলিয়া ইউনিয়নের তেথুলিয়া গ্রামে। বুধবার মধ্যরাতে তাকে স্বামীর ঘরের ভেতর গলা টিপে হত্যা করা হয়।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, তিন বছর আগে তেথুলিয়া গ্রামের মো. রব্বানীর ছেলে মোতাকাব্বীরের সাথে বিয়ে হয় একই গ্রামের তরিকুল ইসলামের মেয়ে খুকু মণির। বিয়ের পর থেকে স্বামী-স্ত্রী দুজনেই ঢাকায় গার্মেন্টসে চাকুরী করে বাড়িতে টাকা পাঠাতো। করোনার কারণে দুই মাস যাবৎ চাকুরী থেকে বাড়িতে আসেন তারা।

খুকুমণি করোনার ভয়ে আবার চাকুরীতে যেতে আপত্তি করলে এ নিয়ে তাদের দাম্পত্য কলহ সৃষ্টি হয়। বুধবার রাতে খুকু মণির ভাই এরশাদ ও ভাবী শাহানার কাছে নালিশ করে জামাই মোতাকাব্বীর। পরে সে রাত দশটায় সেখান থেকে রাতের খাবার খেয়ে একই গ্রামে নিজের বাড়ি ফিরে যায়।

বাড়ি আসার কিছু সময় পরে তাদের ঘরে চিৎকারের আওয়াজ পেয়ে প্রতিবেশীরা ঘরে গিয়ে খুকুমণিকে মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে।

খবর পেয়ে খুকু মণির বাড়ির লোকজন পুলিশে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে খুকু মণির লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে নিহতের স্বামী মোতাকাব্বীর, শ্বশুর রব্বানী মিয়া শাশুড়ি ফজিলত খাতুন ও দেবর মোতাচ্ছিরকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এদিকে নিহতের বাবা তরিকুল ইসলাম বাদী হয়ে জামাই মোতাকাব্বীরসহ চার জনকে আসামি করে মোহনগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মোহনগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ খান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে রাতেই লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যপারে নিহতের বাবা বাদী হয়ে চার জনকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। আসামি চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।









Leave a reply