প্যাডম্যানের কাছে লীলা বানসালির ধর্ণা

|

বেশ বন্ধুর পথ পাড়ি দিয়ে আসা সঞ্জয় লীলা বানসালি তার ‘পদ্মাবতী’র মুক্তির দিনকে আরও নির্ঝঞ্ঝাট করতে ‘প্যাডম্যান’-এর কাছে ধরণা দিয়েছেন। তিনি চলতি মাসের ২৫ তারিখ প্রজাতন্ত্র দিবসে ‘পদ্মাবতী’র মুক্তির দিন ঠিক করেছেন।

এর আগে মুক্তির তারিখ ঠিক করা হয়েছিল ডিসেম্বরের প্রথম দিন। কিন্তু রাজপুত করণি সেনাদের তোপের মুখে তা আর হয়ে ‍ওঠেনি, পিছু হটতে হয়েছিল বানসালি’র ‘পদ্মাবতী’কে। ইতিহাসবিদদের দেওয়া নানা পরামর্শ অনুসারে সিনেমাটিতে পরিবর্তন এনে রেহাই পেয়েছেন তিনি। এমনকি ‘পদ্মাবতী’র নাম বদলিয়ে রাখতে হয়েছে ‘পদ্মাবত’, এবং এই নামেই মুক্তি পাবে সিনেমাটি।

পদ্মাবত সিনেমার একটি পোস্টার

কিন্তু নাম বদলালেও ঝঞ্ঝাট তার ‘পদ্মাবতী’ ওরফে ‘পদ্মাবত’-কে ঠিকই চিনে নিচ্ছে। সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র থাকা সত্ত্বেও গুজরাট, মধ্য প্রদেশ, রাজস্থান ও হরিয়ানা সরকার ‘পদ্মাবত’-এর মুক্তিতে জারি করেছিল নিষেধাজ্ঞা। এহেন সংকটে ত্রাণকর্তা হয়ে এগিয়ে আসতে হয়েছে স্বয়ং দেশটির সর্বোচ্চ আদালতকে। ভারতের সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছে, ‘পদ্মাবতে’র ওপর কোনও নিষেধাজ্ঞা চলবে না, সব রাজ্যেই তা মুক্তি পাবে।

বলতে গেলে সর্ব রকমের ঝক্কি-ঝামেলা পোহানোর পরও বক্স অফিস ফাঁকা পাচ্ছে না ‘পদ্মাবত’, লড়াইয়ে নামতে হচ্ছে অক্ষয় কুমার অভিনীত ‘প্যাডম্যান’-এর সঙ্গে।

প্যাডম্যান সিনেমার একটি দৃশ্যে অক্ষয় কুমার ও রাধিকা আপ্তে

লড়াইয়ে জয় হবে কি না হবে, সে সব দিক বিবেচনা না করেই আর কোনো লড়াই যেতেই চাচ্ছেন না সঞ্জয়। তবে সঞ্জয় কি লড়তে লড়তে ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন? হতেও পারে, এত যন্ত্রণা কি আর প্রাণে সয়!

তাই এবার সব কাঁটা চুকেবুকে দিয়ে ‘পদ্মাবতী’র মুক্তির দিনটিকে নিটোল করতে চাইছেন তিনি।  এ জন্য অক্ষয় কুমারের কাছে প্যাডম্যাড ছবির মুক্তির তারিখ পেছাতে অনুরোধ করেছেন, এ যাবতকালে ফিল্ম ফেয়ারের পুরস্কারের আসরে চার চারটি ‘কালো নারী’ জয়ী সঞ্জয় লীলা বানসালি ওরফে এসএলবি।

জানা গেছে, অক্ষয় কুমার এসএলবি’র অনুরোধটি ভেবে দেখায় সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আর তাই যদি হয়, তবে আপাতত ‘পদ্মাবত’-এর মুক্তির পথে আর কোনো ‘বিন্দ্যাচল’ দেখা যাচ্ছে না।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ

 









Leave a reply