হাসপাতাল থেকে পালিয়ে রোগীর আত্মহত্যা: কৈফিয়ত চাওয়া হয়েছে চিকিৎসকের কাছে

|

প্রতীকী ছবি।

হাসপাতাল থেকে পালিয়ে রোগীর আত্মহত্যার ঘটনায় রাজধানীর মুগদা জেনারেল হাসপাতালের দায়িত্বরত মেডিকেল আফিসারের কাছে কৈফিয়ত চেয়ে চিঠি দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। চিঠিতে কেনো তার বিরুদ্ধে দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে না সেটি জানতে চাওয়া হয়েছে।

গত ২১ জুলাই মুগদা জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক ডা. মোহাম্মদ আবুল হাশেম শেখ স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়েছে, মাে. আব্দুল মান্নান, বয়স ৪৪ বছর, হোসেম হাউজিং সোসাইটি, শ্যামলী, ঢাকা, করোনা আক্রান্ত হয়ে গত ১৫/০৬/২০২০ ইং তারিখে অত্র হাসপাতালে ভর্তি হয়ে ৭৬৪ নম্বর বেডে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তিনি ২০/০৬/২০২০ ইং তারিখ রাত ২.৩০ মিনিটে হাসপাতাল হাতে পালিয়ে যান। রােস্টার অনুযায়ী ঐদিন আপনি ডিউটিরত ছিলেন। এমতাবস্থায়, সরকারী দায়িত্বে অবহেলার দরুণ আপনার বিরুদ্ধে কেনো প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না তা পত্র প্রাপ্তির ০৩ ( তিন ) কর্মদিবসের মধ্যে নিম্ন স্বাক্ষরকারীর দপ্তরে লিখিতভাবে দাখিল করার জন্য বলা হলো।

উল্লেখ্য, মুগদা হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যাওয়া এক কোভিড-১৯ রোগী শনিবার ‘আত্মহত্যা’ করেছেন। আদাবরে ওই ব্যক্তির বাসার কাছের একটি গাছ থেকে তার ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃত আবদুল মান্নান খন্দকার ওই এলাকার একটি বাসায় কেয়ারটেকার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। পুলিশ বলছে, ওই ব্যক্তির পরিবারের আরও তিন সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। তাদের হোম আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছিল, মুগদা হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার চারদিন পর, শুক্রবার রাতে ওই ব্যক্তি সেখান থেকে পালিয়ে যান। শনিবার সকালে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

মান্নানের পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হতাশায় ভুগছিলেন তিনি।









Leave a reply