গাজীপুরে পাওনা টাকা চাওয়ায় সাবেক চেয়ারম্যানকে পিটিয়ে জখম

|

হাজী মোঃ শামসুল হক

গাজীপুর প্রতিনিধি:

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে দোকান ভাড়ার পাওনা টাকা চাওয়ায় আটাবহ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান হাজী মোঃ শামসুল হক (৭০)কে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনায় চেয়ারম্যানের ছেলে মিতুল বাদি হয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগকারী ও তার পরিবার সূত্রে জানা যায়, কালিয়াকৈর ট্রাক স্ট্যান্ডে চেয়ারম্যান শামসুল হকের একটি দোকান ঘর মোয়াজ্জেম হোসেনের ছেলে মোঃ সাখাওয়াত হোসেন (৪০) প্রায় চার বছর যাবত ভাড়া নিয়ে তার ব্যবসা চালিয়ে আসছে।

দোকান ঘরের ভাড়া প্রতিমাসে ১৫০০ টাকা করে দেওয়ার কথা। সর্বশেষ সাখাওয়াত হোসেনের নিকট চেয়ারম্যান ৮ মাসের ভাড়া মোট ১২০০০ টাকা পাওনা হয়। গত রোববার (২৭ জুন) বিকেলে সাখাওয়াত চেয়ারম্যানকে ফোন করে বাহিরে নিয়ে দোকান খোলার ব্যাপারে কথা বললে চেয়ারম্যান সাখাওয়াতকে বলে যে, গত আট মাসের বকেয়া ভাড়া দিতে হবে না আমি দোকান আর তোমাকে ভাড়া দেবো না।

একথা শুনে ভাড়াটিয়া সাখাওয়াত চেয়ারম্যানের ওপর চড়াও হয়ে ওঠে অতঃপর দুইপক্ষ বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এই অবস্থায় সাখাওয়াতের সাথে মৃত কালু মিয়ার ছেলে মোঃ কামাল উদ্দিন (৪৭) ড্রাইভার নামক এক ব্যক্তিসহ আরও কয়েকজন চেয়ারম্যান এর উপর হামলা চালায় পরে চেয়ারম্যানকে এলোপাতাড়িভাবে মারপিট করে জখম ও আহত করে।

সাবেক এই চেয়ারম্যান বলেন, ঘটনার সময় তার পাঞ্জাবির পকেটে ৫০,০০০ টাকা ছিল সেই টাকাও বিবাদি সাখাওয়াত বাহিনী ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে বিবাদি সাখাওয়াতের সাথে যোগাযোগ করা যায়নি। অপর বিবাদি কামাল উদ্দিন এর সাথে কথা বলে জানা যায়, দোকান ভাড়ার ব্যাপারে চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলতে গেলে এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান আমাদের ওপর মারমুখী আচরণ করে অতঃপর ঘটনার জের ধরে এক সময় দু’পক্ষের হাতাহাতির ঘটনায় জড়িয়ে পড়ি।

কালিয়াকৈর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনিসুল হক বলেন, এ ব্যাপারে একটি অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।









Leave a reply