পেওনিয়ার বন্ধে বিপাকে ফ্রিল্যান্সাররা

|

যুক্তরাজ্য সরকারের নিষেধাজ্ঞার কারণে বর্তমানে বন্ধ রয়েছে অনলাইন লেনদেনের অন্যতম নির্ভরযোগ্য ও জনপ্রিয় মাধ্যম পেওনিয়ার। এর ফলে বিপাকে পড়েছেন দেশে বিদেশের ফ্রিল্যান্সাররা। ইতিমধ্যে সংকট সমাধানের আশ্বাস দিলেও তা কতদিনের মধ্যে সমাধান হবে তা নির্দিষ্ট করে বলতে পারছেনা পেওনিয়ার কর্তৃপক্ষ।

এদিকে পেওনিয়ার বন্ধে বিপাকে পড়েছেন দেশের ফ্রিল্যান্সাররা। বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সাররা জানান, তারা অধিকাংশই অনলাইন সাবক্রিপশন, পেমেন্ট রিসিভ ও পে করার জন্য পেওনিয়ার ব্যবহার করেন। ফলে বর্তমানে তাদের কার্যক্রমও কার্যত বন্ধ হয়ে গেছে। ফ্রিল্যান্সারদের বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ ও ব্যক্তিগত স্ট্যাটাসে তারা তাদের এসব সমস্যার কথা জানাচ্ছে ।

তারা জানায়, আন্তর্জাতিক পেমেন্ট গেটওয়ে হিসেবে দেশীয় ফ্রিল্যান্সারদের বেশিরভাগই পেওনিয়ার ব্যবহার করেন। কিন্তু যুক্তরাজ্য সরকারের ফিন্যান্সিয়াল কন্ডাক্ট অথরিটির (এফসিএ) নির্দেশে এটা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তারা কেউ তাদের ক্লায়েন্টদের পেমেন্ট রিসিভ করাসহ বিভিন্ন সেবার সাবক্রিপশন ফি পরিশোধ করতে পারছেন না।

অন্যদিকে যেসব ফ্রিল্যান্সারার এই মাস্টারকার্ড দিয়ে গুগল অ্যাডসেন্স, আলি এক্সপ্রেস,অ্যামাজনসহ বিভিন্ন কার্যক্রমে যুক্ত, এবং যারা ডোমেইন হোস্টিং এক্সটেন্ড এবং অনলাইন টুলস অ্যাক্টিভেশন বা আপগ্রেডেশনের কাজে পেওনিয়ার ইউজ করছেন তারাও বড় ধরণের সমস্যায় পড়েছেন।

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ফ্রিল্যান্সিংয়ে সুপরিচিত হাসিন হায়দার ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘পেওনিয়ারের ইস্যুটা অ্যালার্মিং। প্রথম যেই কাজটা আপনাকে করতে হবে সেটি হলো আপনার যত সাবস্ট্ক্রিপশন কেনা আছে সেগুলোর রিনিউয়াল ডেট চেক করা এবং সেগুলোর জন্য ব্যাকআপ পেমেন্ট মেথড অ্যাড করা। কারণ আপনার সাবস্ট্ক্রিপশনের সময় ট্রানজেকশন যদি বাউন্স করে তাহলে ইমিডিয়েটলি আপনার সাবস্ট্ক্রিপশন অফ হয়ে যাবে। যারা গান-বাজনার সাবস্ট্ক্রিপশন কিনে রেখেছেন, তাদের জন্য হয়তো প্রবলেম নেই। কিন্তু হোস্টিং/সার্ভার রিলেটেড বিষয়গুলো অনেক ক্রুশিয়াল।’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘এরপরে যেটা করতে হবে, যদি ব্যাকআপ পেমেন্ট মেথড অ্যাড করতে পারেন বা নাও পারেন, এখনই আপনার হোস্টিং/সাইটের ফুল ব্যাকআপ নিয়ে নিন যাতে হোস্টিং ক্যানসেল হয়ে গেলেও অ্যাটলিস্ট পরে আপনি রি-স্টোর করতে পারেন (খুবই ইম্পর্ট্যান্ট)। টাকা গেলে টাকা আবার আসবে; কিন্তু ডেটা লস হলে ডেটা পাবেন না।’

এদিকে, শুক্রবার রাতে নিজেদের এক ব্লগপোস্টে পেওনিয়ার জানায়, ব্যবহারকারীদের কথা বিবেচনায় রেখে খুব দ্রুতই তাদের সেবা স্বাভাবিক করার চেষ্টা করা হচ্ছে। খুব দ্রুতই সেবাটি আবার ব্যবহারকারীদের কাছে ফিরে আসবে।









Leave a reply