‘পরমাণু চুক্তি প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্র’

|

যুক্তরাষ্ট্রের চাপ প্রয়োগ সত্ত্বেও ছয় বিশ্ব শক্তির সাথে সই হওয়া পরমাণু চুক্তি পুনর্মূল্যায়ন করবে না বলে জানিয়েছে ইরান। মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে এমন মন্তব্য করেন দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। তিনি বলেছেন, স্বাক্ষরিত পরমাণু চুক্তি পুরোপুরি মেনে চলছে ইরান। তিনি আরও দাবি করেছেন, কোন রকম ধ্বংসাত্মক নয়, কেবল প্রতিরক্ষামূলক ক্ষেত্রেই ব্যবহার করা হচ্ছে পরমাণু শক্তি।

সংবাদমাধ্যমে রুহানি অভিযোগ করেন, আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত একটি পরমাণু চুক্তিকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে যুক্তরাষ্ট্র বার বার চেষ্টা চালাচ্ছে। তবে ওয়াশিংটনের পদক্ষেপকে ইরানের জন্য বাধা হিসেবে স্বীকার করতে নারাজ রুহানি।

পরমাণু চুক্তি ইস্যুতে ইরানকে একঘরে করতে ওয়াশিংটনের এসব উদ্যোগ সফল হবেনা বলে আশা প্রকাশ করে তিনি বলেছেন, ‘পরমাণু চুক্তি পূনর্বিবেচনা বা নতুন করে লেখা সম্ভব নয়। আড়াই বছরের চেষ্টার পর সফল হয়েছে এই চুক্তি, যা জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ কর্তৃক স্বীকৃত। আর এটি আন্তর্জাতিক চুক্তি, একতরফাভাবে নাম প্রত্যাহারের সুযোগও নেই। ফলে ইইউ’র (ইউরোপীয় ইউনিয়ন) বা যুক্তরাষ্ট্র কারও সাথেই সমঝোতায় যাবো না আমরা।’

২০১৩ সালের ২৪ নভেম্বর সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় ইরান ও বিশ্বের ছয় শক্তিধর জাতির সাথে একটি অন্তর্বর্তী সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ছয় দেশের মধ্যে আছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী পাঁচ সদস্য রাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, রাশিয়া ও চীন। চুক্তিবদ্ধ অন্য দেশটি হল জার্মানি। ট্রাম্পের নেতৃত্ত্বাধীন যুক্তরাষ্ট্র সরকার অনেকদিন থেকেই বলছে তারা যেকোন সময়ই এই চুক্তি থেকে বের হয়ে যেতে পারে। তবে,যুক্তরাজ্য ও রাশিয়াসহ অন্য তিনটি দেশ চুক্তি সুরক্ষিত এবং অক্ষুন্ন রাখার পক্ষেই মত দিয়েছে।









Leave a reply