খালেদা জিয়ার মামলার রায় আজ

|

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের নামে দুই কোটি ১০ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার রায় ঘোষণা হবে আজ বৃহস্পতিবার। বকশিবাজারে পঞ্চম বিশেষ জজ মো. আখতারুজ্জামানের বিশেষ আদালতে বৃহস্পতিবার এ রায় ঘোষণা হওয়ার কথা।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা রায় আজ। বকশিবাজারে বিশেষ আদলতে মামলার রায় দেওয়া হবে।

আজ যে মামলার রায় নিয়ে এতো উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা, সেই জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলাটি দায়ের হয়েছিল সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে। সে সময় খালেদা জিয়াসহ জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধেও হয়েছিলো বেশ কিছু দুর্নীতির মামলা। মামলা হয়েছিল বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগের কয়েকজন সিনিয়র নেতার বিরুদ্ধেও। সেসব মামলার কিছু খারিজ হলেও, অনেকগুলোই বিচারাধীন।

দুর্নীতির মামলায় কারাগারে পাঠানো হয়েছিল শীর্ষ দুই নেত্রীকেই।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলাটি হয়েছিল এই তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলেই। অবশ্য তার বিরুদ্ধে প্রথম মামলা ছিলো গ্যাটকো দুর্নীতির। এরপর হয় বড় পুকুরিয়া, নাইকো দুর্নীতি মামলা।সে সময় অবৈধ সম্পদ অর্জনের নোটিশ পেলেও শেষ পর্যন্ত ছাড় পেয়েছেন অভিযোগ থেকে।

তত্ত্বাবধায়ক আমলে দুর্নীতির মামলা হয়েছে জিয়া পরিবারের দুই সদস্য তারেক রহমান ও প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর বিরুদ্ধেও। তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ছিল অর্থপাচার, ঘুষ গ্রহণ ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলা। এর মধ্যে অর্থপাচার মামলায় সাজা হয়েছে তার। সে সময় মামলা হয় বিএনপির অনেক সিনিয়র নেতার বিরুদ্ধেও।

তবে তত্বাবধায়ক সরকারের সময় খালেদা জিয়ার আগে খড়গ নামে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ওপর। মামলা ছাড়াই ২০০৭’র ১৬ জুলাই গ্রেফতার হন তিনি। ভাসমান বিদ্যুত কেন্দ্র ও নাইকো মামলাসহ দুর্নীতি ও চাঁদাবাজির ৬টি মামলা হয়েছিলো শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে। ২০০৯-এ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে বাদিরা প্রত্যাহার করে নেন চাঁদাবাজির মামলা। আর দুর্নীতির মামলা খারিজ হয়ে যায় আদালতে।

সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন সিনিয়র নেতার বিরুদ্ধেও হয়েছিলো দুর্নীতির মামলা। এর বেশিরভাগই খারিজ হয়েছে আদালতে।









Leave a reply