৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে যাত্রী পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা ইতালির

|

ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশিদের ইতালি প্রবেশে ৫ অক্টোবর পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দেশটির সরকার। দু’একজন প্রবাসীর দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণের জন্য এই পরিণতি বলে মনে করছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

নীতিনির্ধারকরা বলছেন, সেখানে গিয়ে কোয়ারেন্টাইন অমান্য করে কাজে যোগ দিয়ে অন্যদের সংক্রমিতও করেছেন তারা। এরইমধ্যে ইতালির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করে দুঃখ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, দেশটিতে পৌঁছালে রাষ্ট্রীয় খরচে তাদেরকে হোটেলে কোয়ারেন্টাইনে পাঠায় ইতালি সরকার। সেটি অমান্য করে দেশীয় খাবারের সন্ধানে বের হন কেউ কেউ। এমনকি হোটেলে কাজও শুরু করেছিলেন একজন। সেখানকার কয়েকজন কোভিড-১৯ সংক্রমিত হলে কন্টাক্ট ট্রেসিংয়ে ধরা পড়ে পুরো ঘটনা।

পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, বাংলাদেশ থেকে যাওয়া আরেকটি ফ্লাইটে কয়েকজন কোভিড পজেটিভ শনাক্ত হন। এরপর এক সপ্তাহের জন্য ঢাকার সাথে ফ্লাইট বাতিল করে তারা। বুধবার আবারো কাতার হয়ে ইতালি যান দেড় শতাধিক বাংলাদেশি। তাদের এরইমধ্যে ফেরত পাঠিয়েছে দেশটি। ৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশিদের জন্য ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে তারা। এসব ঘটনায় রীতিমত বিব্রত বাংলাদেশ।

জনসচেতনতার পাশাপাশি বিদেশগামীদের কোভিড রিপোর্টের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও সিভিল এভিয়েশনকে আরও সতর্ক থাকার তাগিদ দিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

ইউএইস/









Leave a reply